নিউ আলিপুরে বৃদ্ধ খুনের কিনারা, সিসিটিভি ফুটেজে রহস্যভেদ !

Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Aug 26, 2017 06:04 PM IST
নিউ আলিপুরে বৃদ্ধ খুনের কিনারা, সিসিটিভি ফুটেজে রহস্যভেদ !
Photo : AFP
Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Aug 26, 2017 06:04 PM IST

#কলকাতা: আচমকা নয়। রীতিমতো রেইকি করে নিউ আলিপুরের ফ্ল্যাটে চুরি করতে ঢুকেছিল জাকির ও সুরজ। টার্গেটের কাছাকাছি থাকার জন্য বেহালায় ঘর ভাড়া নিয়েছিল তারা। ঘরের ভিতরের নকশা জানতে কাগজকুড়ানি সেজে আবাসনে ঢোকে ওই দু’জন। পাঁচ অগাস্ট ঘটনার দিন গভীর রাতে গার্ডওয়াল টপকে ভিতরে ঢোকে জাকির ও সুরজ। আড়াই ঘণ্টার অপারেশন। এরপর পাঁচিল টপকেই প্রথমে অটো ও পরে বাস ধরে দক্ষিণ ২৪ পরগনায় পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা।

নিউ আলিপুরের ‘ও’ ব্লক। প্লট নম্বর ৬৫৪। এই ঠিকানাতেই রহস্যময় খুন। বৃদ্ধ মলয় মুখোপাধ্যায় ফ্ল্যাটের একতলায় একাই থাকতেন। তাঁর ঘরেই লুঠের ছক কষেছিল দুই দুষ্কৃতী জাকির মোল্লা আর শেখ সুরজ। নিউ আলিপুর থেকে কয়েক কিলোমিটার মধ্যেই পড়ে বেহালা। সেখানেই বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকছিল দু’জন। এর আগে বাড়ির নাড়িনক্ষত্র জেনে নেয় দু’জনে। পুরনো কাগজ, বাতিল জিনিসপত্র কেনার অজুহাতে ফ্ল্যাটে ঢোকে দুই খুনি।

পয়লা ও দোসরা অগাস্ট কাগজ কুড়ানি সেজে আবাসনে ঢোকে জাকির ও সুরজ। এর আগেও কয়েকবার রেইকি করতে ফ্ল্যাটে ঢোকে তারা। ওইদিন রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ এলাকায় পৌঁছয় দুষ্কৃতীরা।

রাত ১.৩০ -পাঁচিল টপকে আবাসনে ঢোকে দুষ্কৃতীরা। জানলার গ্রিল কেটে ভিতরে ঢোকার চেষ্টা করলেও ব্যর্থ হয়। দরজা ভেঙে ঘরে ঢোকে। ব্রিফকেস ও মোবাইল নিয়ে নেয় তাঁরা। এরপর আলমারি খোলার চেষ্টা করতেই ঘুম ভেঙে যায় মলয় মুখোপাধ্যায়ের। বাধা দিলে তাঁকে স্লাইডিং ডোরের রাবার পেঁচিয়ে খুন করা হয়।

ভোর ৩.২৫ -আড়াই ঘণ্টার অপারেশন শেষে ফের পাঁচিল টপকে আবাসনের বাইরে আসে দুষ্কৃতীরা।

ভোর ৩. ৩০ - নিউ আলিপুর মোড় পর্যন্ত হেঁটে আসে দুষ্কৃতীরা। সেখান থেকে তারাতলা মোড় পর্যন্ত শাটল ও পরে বাসে করে পালিয়ে যায় জাকির ও সুরজ।

কীভাবে খুনের এই খুঁটিনাটি জানতে পারল পুলিশ। ৬ অগাস্ট ঘটনার পর পুলিশ এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ দেখা শুরু করে। দেখা যায়, ৫ অগাস্ট রাত ১১.৩০ নাগাদ নিউ আলিপুর থানার দিকে দুর্গাপুর ব্রিজের কাছাকাছি আইল্যান্ড। সিসিটিভি ক্যামেরায় দু’জন সন্দেহভাজনকে হেঁটে আসতে দেখা যায়। ব্রিজ থেকে বাঁ-দিকে গেলে বৃদ্ধের বাড়ি। সেদিকেই দু’জনকে হেঁটে যেতে দেখা যায়। ওই রাস্তায় বৃদ্ধের বাড়ি যেতে পরপর বেশ কয়েকটি সিসিটিভি রয়েছে। সেখানকার ফুটেজেও ওই দুই সন্দেহভাজনকে দেখা যায়। পরে ট্রাফিক পুলিশের থেকে আরও কিছু ছবি পায় পুলিশ। ভোর ৩.৩০ মিনিটের নিউ আলিপুরের সিসিটিভি ফুটেজও পুলিশের হাতে আসে। সেখান থেকেই ঘটনাক্রম মিলে যায়।

বৃদ্ধের চুরি যাওয়া মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে একজনকে আটক করে পুলিশ। খোঁজ মেলে মূল দুই সন্দেহভাজনের। একইসঙ্গে সিসিটিভি ফুটেজের সূত্র থেকে দু’য়ে দু’য়ে চার করে পুলিশ। এরপরই শনিবার ভোররাতে কাকদ্বীপ থেকে পুলিশের জালে ধরা পরে দুই দুষ্কৃতী জাকির মোল্লা ও শেখ সুরজ। বৃদ্ধের ঘর থেকে খোয়া যাওয়া বিভিন্ন জিনিসের অনেকটাই উদ্ধার হয়েছে। আরও কিছু উদ্ধার হয় কি না, তার খোঁজ চলছে।

First published: 06:00:00 PM Aug 26, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर