৭ পুরসভার ভোটে বিক্ষিপ্ত হিংসা, অশান্তির ভরকেন্দ্র দুর্গাপুর

Aug 13, 2017 07:09 PM IST | Updated on: Aug 13, 2017 07:09 PM IST

#কলকাতা: পুরভোটে বিক্ষিপ্ত হিংসা। কোথাও, দুষ্কৃতীদের গুলি-বোমাবাজি। পুলিশের পালটা লাঠি-কাঁদানে গ্যাস। কোথাও বা স্থানীয় বাসিন্দাদের প্রতিরোধ। আর মূলত তার ভরকেন্দ্র হয়ে রইল দুর্গাপুর। বহিরাগতদের তাণ্ডব থেকে রেহাই পেলেন না পুলিশ ও সাংবাদিকরাও। বিক্ষিপ্ত কিছু গোলমাল হয়েছে নলহাটি, বুনিয়াদপুরে। বাকি চার পুরসভায় ভোট মিটেছে মোটামুটি শান্তিতেই।

৭ পুরসভার ভোটে বিক্ষিপ্ত হিংসা, অশান্তির ভরকেন্দ্র দুর্গাপুর

দুর্গাপুর

রবিবার পুরভোট ঘিরে দফায় দফায় উত্তেজনা দুর্গাপুরের তেরো নম্বর ওযার্ডে। ভোট শুরু হতেই চলে গুলি। শুরু হয় বোমাবাজি। জাতীয় সড়ক অবরোধ করে সিপিএম ও বিজেপি। পালটা লাঠিচার্জ করে পুলিশ। ছোড়া হয় কাঁদানে গ্যাসও।

উত্তপ্ত হয়ে ওঠে চৌত্রিশ নম্বর ওয়ার্ডও। সেখানে পুলিশকর্মীর রাইফেল ছিনতাই করে বহিরাগতরা। যদিও, পরে তা উদ্ধার হয়। তিনটি বাইকে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। এমনকী বুথেও আগুন লাগানোর চেষ্টা হয়।

ছত্রিশ নম্বর ওয়ার্ডের তামলা ও মায়াবাজার এলাকায় ব্যাপক বোমাবাজি চলে। পুলিশ ও সাংবাদিকদের গাড়ি লক্ষ করেও বোমা-ইট ছোড়া হয়। ফের আক্রান্ত হয় ইটিভি নিউজ বাংলা। জখম হন একাধিক সাংবাদিক।

গোলমাল হয়েছে দুর্গাপুরের আরও বেশ কিছু এলাকায়।

নলহাটি

পুরভোটের সকাল থেকেই উত্তপ্ত ছিল নলহাটির ১১ ও ১২ নম্বর ওয়ার্ড। বারো নম্বর ওয়ার্ডের ইভিএম লুঠ করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। লাঠি চালিয়ে পরিস্থিতি আয়ত্তে আনে পুলিশ। পালটা ইট ছোড়ে বহিরাগত দুষ্কৃতীরা। এখানেও আক্রান্ত হন সাংবাদিকরা।

বুনিয়াদপুর

প্রথম ভোটেই উত্তপ্ত বুনিয়াদপুরের কয়েকটি ওয়ার্ড। বারো নম্বর ওয়ার্ডে বহিরাগতদের আটকে দেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এক মহিলা-সহ পাঁচ জনকে আটক করা হয়। উদ্ধার হয় আগ্নেয়াস্ত্র। মারধরের পর তাদের পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। ছয় নম্বর ওয়ার্ডে বিজেপি প্রার্থীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে।

পাঁশকুড়া

পাঁশকুড়ায় ভোট মোটের ওপর শান্তিপূর্ণ। তবে ৮ নম্বর ওয়ার্ডে বিজেপি কর্মীদের মারধর করে পুকুরে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে ছাপ্পা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে শাসকদলের বিরুদ্ধে। (১৩ নম্বর ওয়ার্ডের দুটি বুথে ইভিএম ভাঙচুর হয় বলে অভিযোগ। ঘটনায় নির্দল প্রার্থীর এজেন্ট-সহ ধৃত চার। একটি বুথে ভোট হলেও, আরেকটি বুথে ভোটগ্রহণ সম্পূর্ণ হয়নি।)

হলদিয়া

১৮ নম্বর ওয়ার্ডে বিজেপি কর্মীকে অপহরণের অভিযোগ ওঠে। ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে সিপিএম প্রার্থীকেও অপহরণের অভিযোগ উঠেছে। হলদিয়ার অ্যাসেম্বলি অব গড চার্চ স্কুলের বুথে এক বিজেপি কর্মীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে।

হলদিয়া পুরসভায় প্রেস্টিজ ফাইট তৃণমূল কংগ্রেস নেতা শুভেন্দু অধিকারীর। শিল্পশহরে তৃণমূলের নিরঙ্কুশ ক্ষমতা ধরে রাখতে এদিন দিনভর ঘুরলেন তিনি।

কুপার্স ক্যাম্প

১০ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি প্রার্থীর পোলিং এজেন্ট নিখোঁজ হয়ে যান বলে অভিযোগ ওঠে। ১ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূল কর্মীকে চড় মারার অভিযোগ উঠেছে নির্দল প্রার্থীর বিরুদ্ধে। ছাপ্পা ভোটের অভিযোগও উঠেছে।

ধূপগুড়ি

অন্যরকম ছবি ধূপগুড়িতে। রবিবার সকাল থেকে টানা বৃষ্টি চললেও এখানে ভোটারদের উৎসাহে ভাটা পড়েনি। বিক্ষিপ্ত কিছু অশান্তি বাধে এলাকায়।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES