ভুয়ো ডাক্তারকাণ্ডের জেরে কী পদক্ষেপ নিচ্ছে রাজ্য মেডিক্যাল কাউন্সিল ?

Jun 10, 2017 06:30 PM IST | Updated on: Jun 10, 2017 06:30 PM IST

#কলকাতা: চিকিৎসদের প্রবল চাপ ও ভুয়ো ডাক্তারকাণ্ডে নাম জড়িয়ে যাওয়ায় শেষমেশ বোধদয় রাজ্য মেডিক্যাল কাউন্সিলের। এবার থেকে সবসময় চিকিৎসককে কাউন্সিলের দেওয়া পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখতে হবে। এছাড়া কোন বিষয়ে স্নাতকোত্তর পাস করছেন প্রেসক্রিপশনে তার উল্লেখ করতে হবে চিকিৎসকদের। রাজ্য মেডিক্যাল কাউন্সিলের বৈঠকে গতকাল এই সিদ্ধান্ত হয়েছে। একইসঙ্গে বেসরকারি হাসপাতালের ক্ষেত্রেও পুলিশ ভেরিফিকেশন বাধ্যতামূলক করার জন্য স্বাস্থ্য দফতরের কাছে আবেদন করছে কাউন্সিল।

কলকাতা থেকে জেলা। রাজ্যের সর্বত্রই ভুয়ো চিকিৎসকের খোঁজ মিলছে। যা নিয়ে রীতিমতো অস্বস্তিতে রাজ্য মেডিক্যাল কাউন্সিল। বিপাকে পড়ে এবার কড়া ব্যবস্থার পথে হাঁটছে তারা। শুক্রবার মেডিক্যাল কাউন্সিলের বৈঠকে একাধিক সিদ্ধান্ত হয়েছে।

ভুয়ো ডাক্তারকাণ্ডের জেরে কী পদক্ষেপ নিচ্ছে রাজ্য মেডিক্যাল কাউন্সিল ?

পুলিশ ভেরিফিকেশন বাধ্যতামূলক

- সরকারি হাসপাতালে মতো বেসরকারিতেও পুলিশ ভেরিফিকেশন বাধ্যতামূলক করতে হবে

- কর্মরত ও নিয়োগ উভয় ক্ষেত্রেই তা বাধ্যতামূলক করতে হবে

- এছাড়া মেডিক্যাল কাউন্সিলের রেজিস্ট্রেশনও বাধ্যতামূলক করতে হবে

- কাউন্সিলের দেওয়া পরিচয়পত্র চিকিৎসকদের সঙ্গে রাখতে হবে

সরকারি হাসপাতালের নিয়মের কারণেই সেখানে ভুয়ো চিকিৎসকের খোঁজ মেলেনি বলে দাবি কাউন্সিলের। সরকারি হাসপাতালের সঙ্গে যুক্ত যে দু'জন গ্রেফতার হয়েছেন তাঁরা অস্থায়ী পদে নির্দিষ্ট একটি প্রকল্পের আওতায় কাজ করতেন। এই নিয়মগুলি কার্যকর করার জন্য স্বাস্থ্য দফতরের কাছে আবেদন জানাতে চলছে রাজ্য মেডিক্যাল কাউন্সিল। চিকিৎসকদের প্রেসক্রিপশনেও কড়াকড়ি করা হচ্ছে।

- ক্রসপ্যাথি অর্থ‍াৎ একজন চিকিৎসক মেডিসিনে MD হওয়া সত্বেও গাইনি বা হার্টের চিকিৎসা করছেন

- প্রেসক্রিপশনে MD লেখা থাকলেও সেখানে বিষয়ের উল্লেখ থাকে না

- সাধারণ ডিপ্লোমা করে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক লিখছেন

- সব চিকিৎসককেই প্রেসক্রিপশনে স্নাতকোত্তরের বিষয়ের উল্লেখ করতে হবে

- কোনও বিষয়ে ডিপ্লোমা থাকলে প্রেসক্রিপশনে তার উল্লেখ করতে হবে

- রেজিস্ট্রেশন নম্বরও প্রেসক্রিপশনে লেখা বাধ্যতামূলক

নির্দেশিকা না মানলে আইনি পদক্ষেপ করা হবে বলে জানিয়েছে কাউন্সিল। এছাড়া, ভিনরাজ্যের রেজিস্ট্রেশন নিয়ে এরাজ্যে চিকিৎসা করা বেআইনি। তবুও বহু চিকিৎসকই এই কাজ করেন। তাই ভিনরাজ্য থেকে পাস করা চিকিৎসকদের শীঘ্রই রাজ্য মেডিক্যাল কাউন্সিলের রেজিস্ট্রেশন বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। অধিকাংশ চিকিৎসক সদস্যের চাপেই এই বেনজির সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হল কাউন্সিল।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES