‘ধমকাবেন না, আগে নিজেদের সামলান’, দিলীপকে হুঁশিয়ারি মমতার

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Feb 08, 2017 07:19 PM IST
‘ধমকাবেন না, আগে নিজেদের সামলান’, দিলীপকে হুঁশিয়ারি মমতার
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Feb 08, 2017 07:19 PM IST

#কলকাতা: বিধানসভায় জবাবি ভাষণে তিন বিরোধীকেই বিঁধলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাম-কংগ্রেসের টার্গেট সত্ত্বেও, সম্পত্তি ভাঙচুর বন্ধে নতুন আইন নিয়ে পিছোয়নি রাজ্য। মুখ্যমন্ত্রীর বার্তা, গণতান্ত্রিক আন্দোলনের বিরুদ্ধে এই বিল নয়। কিন্তু, পুলিশ বা সংবাদমাধ্যমের গাড়ি ভাঙা চলবে না। ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। একইসঙ্গে বিজেপি বিধায়ক দিলীপ ঘোষকেও আক্রমণ করেন তিনি।

ভাঙড়, দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার বিষ্ণুপুর বা বোলপুরের শিবপুর। লাগাতার হিংসা ও সম্পত্তি নষ্টের ঘটনায় বিরক্ত রাজ্য সরকার। তা রুখতেই বুধবার বিধানসভায়, সম্পত্তি ভাঙচুর বন্ধে নতুন বিল আনা হয়। কিন্তু, সেই বিল ঘিরে চূড়ান্ত বিশৃঙ্খলার সাক্ষী হয় বিধানসভা। নতুন আইনে আন্দোলনের অধিকার খর্ব হবে বলে অভিযোগ তোলে বাম-কংগ্রেস। তা উড়িয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জবাবি ভাষণে তিনি বলেন,

বাম-কংগ্রেসকে বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

‘মাননীয় স্পিকার যথেষ্ট হয়েছে। গণতান্ত্রিক আন্দোলনের বিরুদ্ধে এই বিল নয়। এই আইন সাধারণ মানুষকে রক্ষা করবে। পুলিশ বা সংবাদমাধ্যমের গাড়ি ভাঙা চলবে না। ক্ষতিপূরণ দিতেই হবে। ভাঙতে কম সময় লাগে, কিন্তু, গড়তে অনেক সময় লাগে।’

 সোমবার, কলকাতার জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রীকে তীব্র আক্রমণ করেন বিজেপি নেতারা। বুধবার, নোটবাতিল পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার সময় বুধবার, বিজেপি শিবিরকে হুঁশিয়ারি দেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রী দিলীপ ঘোষকে বলেন, ‘ধমকাবেন না, আগে নিজেদের সামলান। উত্তরপ্রদেশ তো বটেই, এবার গুজরাতেও হারবে বিজেপি। আপনারা বলছেন, দিল্লিতে গেলে গাছে বেঁধে রাখবেন! মনে রাখবেন, আমরাও বেঁধে রাখতে পারি। দিলীপবাবু আপনি বুক ফুলিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। কারণ, আমরাই আপনাকে নিরাপত্তা দিই। অনেকের বিরুদ্ধেই অভিযোগ রয়েছে। কেউ ভুল করলে শোধরানোর সুযোগ দেওয়া উচিত।’

বিরোধিতা উড়িয়ে দিয়েই ধ্বনিভোটে পাস হয়েছে সম্পত্তি সম্পত্তি ভাঙচুর বন্ধে নতুন বিল। বুধবার, জবাবি ভাষণের সুযোগে তিন বিরোধীকেই আন্দোলন নিয়ে হুঁশিয়ারি দিয়ে রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী।

First published: 07:19:41 PM Feb 08, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर