সন্দেশখালি ধর্ষণে পুলিশি তদন্ত নিয়ে ক্ষুদ্ধ হাইকোর্ট

Aug 04, 2017 07:30 PM IST | Updated on: Aug 04, 2017 07:30 PM IST

#কলকাতা: সন্দেশখালি ধর্ষণে পুলিশি তদন্ত নিয়ে ক্ষুদ্ধ হাইকোর্ট। তদন্তের গতিপ্রকৃতি নিয়ে রাজ্যের কাছে তদন্ত রিপোর্ট তলব হাইকোর্টের। ২ সপ্তাহের মধ্যে দিতে হবে রিপোর্ট। ঘটনার পর ১ মাস কেটে গেলেও জমা পড়েনি নিগৃহীতার ময়নাতদন্ত ও শারীরিক পরীক্ষার রিপোর্ট জমা পড়েনি। এনিয়ে পুলিশি গাফিলতির অভিযোগ উঠলেও নিগৃহীতার পরিবারের পাশে দাঁড়াচ্ছে রাজ্য।

বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করা হয়েছিল সন্দেশখালির মহিলাকে। ২৪ দিন চিকিৎসার পর মৃত্যু হয় তাঁর। নির্ভয়া -কাণ্ডের মতই ওই মহিলার ওপরও নির্যাতন চলে বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় পুলিশি তদন্ত নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিল হাইকোর্ট। অস্থায়ী প্রধান বিচারপতি নীশিতা মাত্রের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চের নির্দেশ, তদন্তের অগ্রগতি নিয়ে আগামী ২ সপ্তাহে রিপোর্ট দিতে হবে উত্তর ২৪ পরগণা জেলা পুলিশকে। এদিন কোর্টে যে সওয়াল জবাব চলে তা অনেকটা এরকম,

সন্দেশখালি ধর্ষণে পুলিশি তদন্ত নিয়ে ক্ষুদ্ধ হাইকোর্ট

Representational Image

বিচারপতি

এতবড় ঘটনায় কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে?

-

এজি

তদন্ত চলছে। একজনই অভিযুক্ত। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য কেউই জড়িত থাকলে তদন্তে বেরিয়ে আসবে

--

বিচারপতি

কবেকার ঘটনা - কখন গ্রেফতার হয়েছে

-

এজি

৪ জুলাইয়ের ঘটনা। একজনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে।

-

বিচারপতি

ময়নাতদন্তের রিপোর্ট কোথায়? মেডিক্যাল রিপোর্টই বা জমা পড়েনি কেন?

এজি

ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এখন পাওয়া যায়নি। মেডিক্যাল এভিডেন্স রিপোর্টও হাতে আসেনি

-

বিচারপতি

একমাস কেটে গেল, অথচ ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এখনও পাওয়া গেল না? এটা কীভাবে সম্ভব?

--

এজি

অভিযোগপত্রটা দেখুন -একজনকেই অভিযুক্ত করা হয়েছে। প্রাথমিক বয়ানও লক্ষ্য করুন। কোথাও গণধর্ষণের কথা বলা নেই।

-

মামলাকারী

--

বয়ানে বলা হয়েছে, নিগৃহীতাকে চোখ বেঁধে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। সেক্ষেত্রে ধর্ষকরা সংখ্যায় কতজন তিনি বুঝছেন কীভাবে?

এরপরই হলফনামার আকারে পুলিশি তদন্ত নিয়ে রিপোর্ট জমার নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট। পুলিশি তদন্তে গাফিলতি নিয়ে পুলিশের গাফলতি স্পষ্ট হয়েছে হাইকোর্টের বক্তব্যে। তবে তারই মধ্যে নিগৃহীতার পরিবারের পাশে দাঁড়াচ্ছে রাজ্য।

নিগৃহীতার এক ছেলেকে চাকরি দেবে সরকার ৷ এছাড়া ৪ ছেলের জন্য ঘর তৈরি করে দেওয়া হবে সরকারের তরফে ৷ রাজ্য সরকারের এই ঘোষণায় কিছুটা হলেও স্বস্তিতে নিগৃহীতার পরিবার।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES