ভুকম্পই নয়, পাহাড়ে আরও বিপদের আশঙ্কা করছে কেন্দ্র !

Akash Misra | News18 Bangla
Updated:May 09, 2017 03:47 PM IST
ভুকম্পই নয়, পাহাড়ে আরও বিপদের আশঙ্কা করছে কেন্দ্র !
Photo : AFP
Akash Misra | News18 Bangla
Updated:May 09, 2017 03:47 PM IST

#কলকাতা: ভুকম্পেই শেষ নয়। পাহাড়ে পরিকল্পনা ছাড়াই যেভাবে গড়ে উঠছে একের পর এক বাড়ি তাতে আগামীদিনে আরও বড় বিপদের আশঙ্কা করছে কেন্দ্র। অন্যদিকে সুন্দরবন ও দীঘা উপকূলে যে ভাবে ভাঙন ধরছে তা নিয়েও উদ্বেগ ধরা পড়েছে কেন্দ্রীয় আধিকারিকদের গলায়। সমস্যা সমাধানে পাহাড় ও সুন্দরবনে আরও বেশি অবজারভেটরি তৈরি করতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

নেপালে পরপর তিনটি ভূমিকম্প ও প্রায় ৭০টি আফটারশকে হিমালয়ের পাথরের দেওয়াল জুড়ে ছোট ছোট অসংখ্য চিড় ধরেছে। ভূ-পদার্থবিদদের আশঙ্কা, বর্ষা নামলে সেগুলো দিয়ে জল ঢুকে পাহাড়ের মাটিকে আলগা করে দেবে। পরিণামে সিকিম-নেপাল-দার্জিলিংয়ের পাহাড় জুড়ে নামতে পারে ধস। পাথরের সঙ্গে পাহাড় বেয়ে নেমে আসবে কাদা। এমনকী কাদায় বন্যায় পাহাড়ি জনপদ ভেসে যাওয়াও বিচিত্র নয় বলে জানাচ্ছেন বিশেষঞ্জরা। এরই মধ্যে সিকিম-দার্জিলিং-কালিম্পং অঞ্চলে প্রতিনিয়ত গজিয়ে উঠছে জনপদ। অভিযোগ কোনও পরিকল্পনা ছাড়াই তৈরি করা হচ্ছে বহুতল। রাজ্য সরকারও এই বিষয়ে পুরসভাগুলিকে সতর্ক করেছে। যদিও এই ব্যবস্থা বন্ধ হয়নি বলেই অভিযোগ। কেন্দ্রীয় সরকারের অার্থ সায়েন্স বিভাগ সূত্রের খবর, পাহাড়ের কোন কোন জায়গা সবচেয়ে বিপজ্জনক এবং ভূমিকম্পে কোথায় কোথায় সমস্যা তৈরি হতে পারে তা জিএসআইয়ের ম্যাপে আছে। আগামী দিনে পাহাড়ে বৃদ্ধি করা হচ্ছে অবজারভেটরি।

অন্যদিকে প্রতিদিনই এগিয়ে আসছে সমুদ্র। আতঙ্কিত সুন্দরবন ও পূর্ব মেদিনীপুরের উপকূল এলাকার বাসিন্দারা। এই সমস্ত এলাকায় সমুদ্র ভাঙন নিয়ে একাধিকবার আলোচনায় বসেছেন জীববিঞ্জানিরা। তাদের বক্তব্য দূষণের জন্য বিলুপ্ত হচ্ছে উপকুলের প্রায় ২৫ প্রজাতির কীটপতঙ্গ। ভূমিক্ষয় রোধে যাদের ভূমিকা অপরিসীম। ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ ওসেন টেকনোলজির বক্তব্য, আগামী কয়েকমাসের মধ্যে সুন্দরবন সহ পূর্ব উপকুল এলাকায় সর্বক্ষণের নজরদারির জন্য দুটি কোস্টাল রিসার্চ ভেসেল আনছে কেন্দ্র। যা তৈরি করছে পশ্চিমবঙ্গের টিটাগড় ওয়াগন।

কেন্দ্রীয় সরকারের কর্তারা অবশ্য জানাচ্ছেন পাহাড় ও সুন্দরবন নিয়ে দফায় দফায় তারা রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনা করছেন। মঙ্গলবার টিটাগড় ওয়াগন ফ্যাক্টরিতে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আসেন কেন্দ্রীয় সরকারের একাধিক দফতরের কর্তারা। সেখানেই এই বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।

First published: 03:47:11 PM May 09, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर