মুখ্যমন্ত্রীর তীব্র আপত্তি সত্ত্বেও কেন্দ্রের গবাদি নির্দেশিকার ধাক্কা কি এরাজ্যেও?

May 31, 2017 06:17 PM IST | Updated on: May 31, 2017 06:43 PM IST

#কলকাতা: মুখ্যমন্ত্রীর তীব্র আপত্তি সত্ত্বেও কেন্দ্রের গবাদি নির্দেশিকার ধাক্কা কি এরাজ্যেও? কলকাতা পুরসভা ও কেন্দ্রীয় সরকারের যৌথ উদ্যোগে তৈরি আধুনিক কসাইখানা বন্ধ নিয়ে বিতর্ক। দায়িত্বে থাকা সংস্থার দাবি, উত্তরপ্রদেশ, হরিয়ানা ও পঞ্জাবের মতো রাজ্য থেকে মোষ আসা বন্ধ। তার জেরে ঝাঁপ পড়েছে আধুনিক ওই কসাইখানারও। যদিও পুরসভার দাবি, সংস্থার সময়সীমা শেষ হওয়ায় নতুন করে টেন্ডার ডাকা হয়েছে। তাই আপাতত বন্ধ কসাইখানা।

কয়েক হাজার কোটি টাকার ব্যবসা। অথচ তাতে বাধ সেধেছে হত্যার জন্য পশুবিক্রির ওপর কেন্দ্রীয় নির্দেশিকা।

মুখ্যমন্ত্রীর তীব্র আপত্তি সত্ত্বেও কেন্দ্রের গবাদি নির্দেশিকার ধাক্কা কি এরাজ্যেও?

কিন্তু, ভিনরাজ্য থেকে পশু আমদানি বন্ধ হলে রাজ্য কি ধাক্কা এড়াতে পারবে? কেন্দ্রের গবাদি নির্দেশিকার মধ্যেই কলকাতার ট্যাংরায় দেশের প্রথম অধুনিক কসাইখানা বন্ধ হয়ে যাওয়া সেই জল্পনা উসকে দিল। কেন বন্ধ হল ওই কসাইখানা? কসাইখানার দায়িত্বে থাকা সংস্থার অভিযোগ, কেন্দ্রের নির্দেশিকার জেরে গোবলয়ের বিভিন্ন রাজ্য থেকে পশু আমদানি বন্ধ। তাতেই ঝাঁপ পড়েছে কসাইখানার।

সংস্থার দাবি অবশ্য উড়িয়ে দিয়েছে কলকাতা পুরসভা। পুরসভা ও কেন্দ্রীয় সরকারের যৌথ উদ্যোগেই তৈরি হয় ওই কসাইখানা। পুরসভার দাবি, ৫ মে শেষ হয়েছে ওই সংস্থার টেন্ডার। তাই আপাতত বন্ধ কসাইখানা।

- ২০১২ সালের ডিসেম্বরে ২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে শুরু হয় ওই কসাইখানা

- ওই কসাইখানায় দৈনিক স৪বাধিক ১২০০ মোষ জবাই করা যেতে পারে

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES