প্রাথমিকে পার্শ্ব শিক্ষকদের সংরক্ষণ রাখা হবে কিনা ভেবে দেখবে সরকার: শিক্ষামন্ত্রী

Feb 17, 2017 07:53 PM IST | Updated on: Feb 17, 2017 07:53 PM IST

#কলকাতা: প্রাথমিক শিক্ষকদের বিক্ষোভে বিরক্ত শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মুখে শোনা গেল এমনই কথা ৷ জেলায় জেলায় প্রাথমিক শিক্ষকপদে চাকরি প্রার্থীরা আংশিক সময়ের বদলে পূর্ণ সময়ের শিক্ষক পদে নিয়োগের দাবিতে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন ৷ বীরভূম, বর্ধমান, পশ্চিম মেদিনীপুর, দিকে দিকে একই চিত্র ৷

মেধা তালিকায় নাম রয়েছে ৷ কাউন্সেলিং প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ ৷ কিন্তু নিয়োগপত্রে পার্শ্ব শিক্ষকের পদ দেখে সেই নিয়োগ পত্র নিতে নারাজ চাকরিপ্রার্থীরা ৷

প্রাথমিকে পার্শ্ব শিক্ষকদের সংরক্ষণ রাখা হবে কিনা ভেবে দেখবে সরকার: শিক্ষামন্ত্রী

জেলায় জেলায় প্যারা টিচারদের আন্দোলন নিয়ে বিরক্ত শিক্ষামন্ত্রী ৷ এই প্রসঙ্গে এদিন পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘প্যারা টিচারের নিয়োগপত্র থাকলে চাকরি পেয়েছে ৷ যাঁদের নিয়োগপত্র নেই তাঁরা পায়নি ৷ প্যারা টিচারদের ১০% সংরক্ষণ ৷ এরকম চলতে থাকলে সংরক্ষণ থাকবে কি না, তা ভেবে দেখবে সরকার ৷’ একইসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর হুঁশিয়ারি, ‘ছাত্রদের না পড়িয়ে যাঁরা আন্দোলন করছেন ৷ সেই সব প্যারা টিচারদের বেতন কাটা যাবে ৷’

পর্ষদ চেয়ারম্যান মানিক ভট্টাচার্যের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ‘প্যানেলে নাম থাকলেই নিয়োগ হবে না ৷ প্যারা টিচারের শংসাপত্রও দিতে হবে ৷ তবেই শিক্ষক পদে নিয়োগ হবে ৷ সংসদ আগেই এব্যাপারে জানায় ৷ সেই শর্তেই ফর্মফিলাপ করেন প্রার্থীরা ৷ অনেকেই শংসাপত্র দিতে পারছেন না ৷ তাঁদেরই একটা বড় অংশ বিক্ষোভে সামিল ৷’

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES