সঞ্জয় সেনকে কোচ করার ব্যাপারে কতদূর এগোল ইস্টবেঙ্গল ?

Jun 01, 2017 03:45 PM IST | Updated on: Jun 01, 2017 03:50 PM IST

#কলকাতা:  মাদুলি-জপমালাতে কাজ হবে না। এটা বুঝেই সঞ্জয় সেনের দিকে হাত বাড়িয়েছে ইস্টবেঙ্গল। মধ্যস্থতা করছেন রাজ্যের প্রথম সারির একজন দাপুটে মন্ত্রী। ক্লাবের তরফে মন্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন খোদ নীতুদা। নীতুদা-মন্ত্রীর যোগসাজেশে প্রস্তাব পৌঁছেও গিয়েছে সেন মহাশয়ের কাছে। তাতে সেন সাহেবের বক্তব্য, মনাদা দল করে দিলে আপত্তির কিছু নেই। কিন্তু কোচ হলে দলে তাঁর পছন্দের কয়েকজনকে নিতে হবে। ঢাকা থেকে ফিরে দর কষাকষির পরবর্তী অংশ।

ডিকাকে প্রস্তাব মহমেডানের

সঞ্জয় সেনকে কোচ করার ব্যাপারে কতদূর এগোল ইস্টবেঙ্গল ?

মহমেডান করছেটা কী ! দীপেন্দু বিশ্বাস তো একাই মাতিয়ে দিচ্ছেন। গুরবিন্দর, শুভাশিস রায় চৌধুরীর পর এবার লালরিন ডিকার দিকে হাত বাড়াল সাদা-কালো রিক্রুটাররা। কোচ বিশ্বজিতের সঙ্গে বসে ফুটবলারদের তালিকা তৈরি করে ফেলেছেন দীপেন্দু-বেলালরা। সেই মতো বড় টাকার অঙ্ক অফার করা হয়েছে ডিকাকে। দিন কয়েক সময় চেয়েছেন ইস্টবেঙ্গলের প্রাক্তন।

শঙ্কর নাও, সামাদ দাও

শঙ্কর নাও। সামাদ দাও। দলবদলে লাল-হলুদ, সাদা-কালোর ডিল এটাই। ইস্টবেঙ্গল, মহমেডান দুই ক্লাবেই সই করে জটিলতায় গোলরক্ষক শঙ্কর রায়। সন্তোষ সেরা গোলরক্ষককে ছেড়ে দেওযার জন্য দীপেন্দুকে অনুরোধ করেন নীতু সরকার। সুযোগ বুঝে দীপেন্দুর পালটা অনুরোধ সামাদকে ছাড়ার।

কেরলে আলভি, ষষ্ঠী

চোখ খুলে দিয়ে ছিলেন ইউনাইটেডের আলো-নবাব। কেরল থেকে ভিপি সুহেশকে এনে চমকে দিয়েছিলেন কলকাতা লিগে। এবার তাই কেরল প্রিমিয়ার লিগে ফুটবলার স্পট করতে আলভিটো ও ষষ্ঠী দুলেকে পাঠাল ইস্টবেঙ্গল। গত সাত দিন ধরে কেরলেই পড়ে রয়েছেন আলভিটো ও ষষ্ঠী। ফিরবেন শুক্রবার। জবি জাস্টিন নামে এক প্রতিশ্রুতিমানকে না কি চোখে ধরেছে আলভিটোর।

আশুতোষ, জায়েশকে চাইছে ইস্ট-মোহন

দলবদলের মরশুমে এবার হটকেক আইজলের ফুটবলাররা। জয়েশ রানের পিছনে দৌড়চ্ছে কলকাতার দুই প্রধানই। আশুতোষ মেহেতাকে চাইছে ইস্টবেঙ্গল। তবে দুই ফুটবলারই সাত তারিখের পর সিদ্ধান্ত জানাবেন বলে জানিয়েছেন। ইস্টবেঙ্গলের দিকে এক পা বাড়িয়ে রয়েছেন আইজলের আরো দুই ফুটবলার লালডানমাউইয়া ও জোটিয়া।

সাতের পর সিদ্ধান্ত খালিদের

স্বীকার করে নিলেন কলকাতার বড় ক্লাবের প্রস্তাব রয়েছে। তবে ফুটবলারদের মতোই আই লিগ সেরা কোচের নজর সাতের কুয়ালালামপুরে। সাতের বৈঠকে কি হয়, সেটা দেখার পরেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন খালিদ জামিল।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES