জুহি কাঁটায় দ্বিধাবিভক্ত বিজেপি, বারবার বয়ান বদল দিলীপ ঘোষের

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Mar 02, 2017 10:50 AM IST
জুহি কাঁটায় দ্বিধাবিভক্ত বিজেপি, বারবার বয়ান বদল দিলীপ ঘোষের
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Mar 02, 2017 10:50 AM IST

#কলকাতা: গ্রেফতার হতেই রাতারাতি বিজেপির কাছে ব্রাত্য হয়ে গেলেন জুহি চৌধুরী। দলের মহিলা মোর্চার সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে সরানো হল জুহিকে। বিজেপির রাজ্য কমিটির থেকে বাদ পড়লেন জুহির বাবা রবীন্দ্রনারায়ণ চৌধুরীও। আইনি লড়াইয়ে পাশে থাকবে দল। প্রথম থেকে সমর্থন জানিয়ে এলেও এখন এটুকু আশ্বাস দিয়েই দায় সারলেন দলের রাজ্য সভাপতি। অস্বস্তি ও দলের ভিতর থেকেই জুহি ইস্যুতে চাপ বাড়ায় এই অবস্থান বলে মনে করা হচ্ছে।

কেন ও কিসের ভিত্তিতে এতদিন জুহিকে আড়াল করা হয়েছে? এই প্রশ্নে দলেই প্রবল চাপ তৈরি হয়। বাবুল সুপ্রিয় বলেন, লুকিয়ে থাকা উচিত্ নয়, নির্দোষ হলে আদালতে গিয়েই প্রমান করতে হবে ৷

মঙ্গলবার জুহি গ্রেফতার হওয়ার পর কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর এই বক্তব্যই স্পষ্ট হয়, জুহি ইস্যুতে রাজ্য বিজেপি কার্যত আড়াআড়ি বিভক্ত। বুধবার আগের অবস্থান থেকে একশো আশি ডিগ্রি ঘুরে যান দিলীপ ঘোষ ৷ বলেন, ‘জুহির জন্য দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে ৷ না জানিয়ে দিল্লি গিয়ে অন্যায় করেছেন ৷ শাস্তি হিসেবে পদ থেকে সরানো হয়েছে ৷ দোষ প্রমাণ না হওয়া পর্যন্ত পাশে থাকছে দল ৷ আইনি লড়াইয়ে সাহায্য করা হবে তাঁকে ৷’ অর্থাৎ বিপাকে পড়ে এখন জুহি ও তাঁর বাবাকে কার্যত ঝেড়ে ফেলারই চেষ্টা।

শিশুপাচারে ধৃত মূল অভিযুক্ত চন্দনা চক্রবর্তী যাঁর কথা বলেছেন, সেই সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায় অবশ্য এখনও ষড়যন্ত্রের তত্বই দিচ্ছেন।

জুহি ইস্যুতে বিজেপির অস্বস্তি কতটা তা পরিস্কার হয়েছে রাজ্য সভাপতির বারবার বয়ান বদলে। দলের ভিতরেও চাপ বাড়ছিল। তাই শেষ পর্যন্ত জুহি ও তাঁর বাবাকে পদ থেকে সরিয়ে নিজেদের আড়াল করার চেষ্টা স্পষ্ট।

First published: 10:50:22 AM Mar 02, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर