বিশ্ববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনেও নোট বাতিলের ‘প্রভাব’

Jan 20, 2017 02:51 PM IST | Updated on: Jan 20, 2017 02:51 PM IST

#কলকাতা: বিশ্ব বঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনেও থাবা বসাল নোট বাতিল ৷ রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় ও রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর উপস্থিতিতেই বেঙ্গল সামিটের মঞ্চ থেকেই নোট বাতিলের সমালোচনায় আরও একবার সরব হলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

তখন স্টেডিয়াম ঠাসা ২৮ দেশের প্রতিনিধি ও শিল্পপতিরা ৷ বাণিজ্য সম্মেলনের উদ্বোধনের পর মঞ্চে বক্তব্য রাখতে উঠে মুখ্যমন্ত্রী সকলের সামনে তুলে ধরেন বাংলার বিকাশ, অগ্রগতি ও উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরেন ৷ এর মাঝেই আরও একবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নোট বাতিল সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেন তিনি ৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘নোট বাতিলের জন্য অনেক সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ ৷ বেশ কিছু শিল্প নগদ লেনদেন বন্ধ হওয়ায় ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন ৷ শ্রমিকেরা বেতন পাচ্ছেন না ৷’ একইসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী এও বলেন, ‘কৃষক-শ্রমিক সকলেই সমস্যায় পড়েছেন ঠিকই কিন্তু রাজ্য সরকারের উদ্যোগে তাঁরা যথেষ্ট সুবিধা পেয়েছে ৷’

বিশ্ববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনেও নোট বাতিলের ‘প্রভাব’

শিল্পপতিদের বাংলায় বিনিয়োগ করার আহবান করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘শুধু কলকাতা বা বাংলা হিসেবে ভাববেন না ৷ বৃহৎ স্বার্থে ভাবুন, বাংলায় বিনিয়োগ করুন ৷ বাংলায় বিনিয়োগ মানে বাংলাদেশ, নেপাল, ভুটানের সুবিধা ৷ উত্তর-পূর্বে রাজ্যগুলোও বাংলার কাছেই ৷ বাংলা হল চীনের সঙ্গে দেশের প্রবেশদ্বার ৷ থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, মালয়শিয়া সবই এখন কলকাতার কাছেই ৷ প্রতিবেশী দেশগুলির বাজার পাবেন বাংলাতেই ৷ বাংলার সঙ্গে প্রতিবেশী দেশের বিমান যোগাযোগ ভাল ৷ আন্তঃরাজ্য বিমান যোগাযোগও ভাল ৷ সবমিলিয়ে ভাবতে হবে বিনিয়োগের জন্য ৷

বাংলার কর্মসংস্কৃতিও শিল্প সহায়ক ৷ নিজের রাজ্যের শিল্পবন্ধু পরিবেশ নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘বাংলায় শ্রমিক আছে, শ্রমদিবস নষ্ট হয় না ৷ বাংলায় শিল্পের জন্য জমি রয়েছে ৷ জমির জন্য নিজস্ব ল্যান্ডব্যাঙ্ক রয়েছে ৷ বাংলায় শিল্পের সুবিধার জন্য উপযুক্ত প্রশাসনিক সুবিধা রয়েছে ৷ বাংলা কোনও বনধ-অবরোধে বিশ্বাস করে না ৷ শিল্প সহায়ক সমস্ত পরিবেশ রয়েছে বাংলায় ৷ হিমালয় থেকে রয়্যাল বেঙ্গল সবই রয়েছে এখানে ৷ সর্বধর্ম সমন্বয়ের অবস্থান রয়েছে বাংলায় ৷ বাংলা এখন পরিবর্তনের বাংলা ৷ বাংলাই এখন শিল্পের প্রবেশদ্বার ৷ বাংলাই ভারতের ইঞ্জিন, এখন বিনিয়োগের আদর্শ স্থান ৷ বাংলায় কোনও সরকার নেই ৷ গোটা বাংলাই আপনাদের পরিবার ৷ আপনাদের পরিবারে আপনারা আসুন ৷’

শুধু বিনিয়োগ টানাই নয়, রাজ্যকে নতুনভাবে তুলে ধরতেও সচেষ্ট ছিল রাজ্য সরকার। বিনিয়োগকারীদের সামনে তুলে ধরা হবে এরাজ্যের নানান সুযোগ সুবিধার কথা। কিন্তু রাজ্যের এই তৃতীয় শিল্প সম্মেলনে নোট বাতিলের জেরে তৈরি আর্থিক মন্দার প্রভাব পড়ার আশঙ্কা করছিলেন বিশেষজ্ঞরা। শিল্পের জন্য বাংলার মাটি কতটা উপযুক্ত তারই খতিয়ান তুলে ধরা হল শিল্প সম্মেলনে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাখির চোখ এখন শিল্প।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES