নেতাজির মৃত্যু নিয়ে কেন্দ্রের মন্তব্যে ক্ষুব্ধ মমতার ফেসবুক বিবৃতি

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jun 02, 2017 03:26 PM IST
নেতাজির মৃত্যু নিয়ে কেন্দ্রের মন্তব্যে ক্ষুব্ধ মমতার ফেসবুক বিবৃতি
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jun 02, 2017 03:26 PM IST

#কলকাতা: নেতাজির মৃত্যু রহস্যের সমাধানে RTI-এর জবাবে বুধবারই উত্তর দিয়েছে কেন্দ্র ৷ তাতে কয়েকদশক ধরে যে রহস্য ও প্রশ্ন ঘুরে বেড়িয়েছে বাঙালির বৈঠকখানা, আলোচনা সভা মায় বিধানসভা থেকে সংসদ, সেই রহস্যের যবনিকা পতনের বদলে ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে বিতর্ক ৷

তথ্যের অধিকার আইনে কেন্দ্র জানায়, ১৯৪৫ সালেই বিমান দুর্ঘটনাতেই মৃত্যু হয়েছে নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু ৷ তবে এব্যাপারে কোনও তথ্যপ্রমাণ পেশ করেনি কেন্দ্রীয় সরকার ৷ এতেই ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

নেতাজির মৃত্যুরহস্য নিয়ে কেন্দ্রের এই দায়সার মনোভাবে প্রবল ক্রুদ্ধ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন ফেসবুকে লেখেন, ‘সম্প্রতি নেতাজি নিয়ে কেন্দ্র তথ্য দিয়েছে ৷ কেন্দ্রের দেওয়া তথ্যে অবাক ও হতাশ ৷ নেতাজি আমাদের ভূমিপুত্র, গর্ব ৷ তাঁর মাপের একজন ব্যক্তিকে নিয়ে কেন্দ্রের এই ঢিলেঢালা আচরণ মানায় না ৷’

কেন্দ্রের প্রতি ক্ষোভ উগরে দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ‘এই নিয়ে প্রধানমন্ত্রী মোদিকে জানিয়েছি ৷ কেন্দ্রের অবস্থান জানতে চেয়েছি ৷’

কেন্দ্র জানিয়েছে, ‘১৯৪৫ সালেই মৃত্যু নেতাজির ৷’ বিমান দুর্ঘটনাতেই মারা গিয়েছেন নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু। তথ্য জানার অধিকার আইনে করা একটি আবেদনের ভিত্তিতে এই উত্তর দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে, শাহনওয়াজ কমিটি, বিচারপতি জি ডি খোসলা কমিটি ও বিচারপতি মুখার্জি কমিশনের তদন্ত থেকে পাওয়া তথ্যে নেতাজির মৃত্যুর প্রমাণ মিলেছে। ১৯৪৫ সালের ১৮ অগাস্ট তাইওয়ানের তাইহোকু বিমানবন্দরে বিমান দুর্ঘটনায় তাঁর মৃত্যু হয়েছে। গুমনামি বাবা বা ভগওয়ানজি যে নেতাজি নন তাও জানিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের এই উত্তরে শুধু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নয় ক্ষুব্ধ বসু পরিবার। নেতাজি রহস্য ভেদ না করে কেন্দ্রীয় সরকার কীভাবে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছল তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন চন্দ্র কুমার বসুও।

First published: 03:26:03 PM Jun 02, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर