উত্তরবঙ্গে বন্যা পরিস্থিতিতে উদ্বিগ্ন মুখ্যমন্ত্রী, তৎপর নবান্ন

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Aug 15, 2017 06:37 PM IST
উত্তরবঙ্গে বন্যা পরিস্থিতিতে উদ্বিগ্ন মুখ্যমন্ত্রী, তৎপর নবান্ন
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Aug 15, 2017 06:37 PM IST

#কলকাতা: উত্তরবঙ্গের বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন মুখ্যমন্ত্রী। পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। সেচ ও বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরকেও উপযুক্ত ব্যবস্থার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। দুর্গতদের সবরকম সাহায্যের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে জেলা প্রশাসনকে। লাগাতার বৃষ্টি বন্ধ হওয়ায় জলপাইগুড়ি,আলিপুরদুয়ার ও কোচবিহারের পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। তবে দুই দিনাজপুর ও মালদহের অবস্থা ঘোরালো।

দক্ষিণবঙ্গে বন্যার ভ্রুকুটি কাটতে না কাটতেই বিপত্তি উত্তরবঙ্গে। সবচেয়ে খারাপ অবস্থা দুই দিনাজপুর ও মালদহে। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে, পরিস্থিতি মোকাবিলায় ইতিমধ্যেই পদক্ষেপ করেছে নবান্ন।

নবান্নের পদক্ষেপ

- সেচ, বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের সঙ্গে বৈঠক মুখ্যসচিবের

- দুই দফতরের কন্ট্রোল রুম থেকে নজরদারি

- উদ্ধারকাজে ৮৮ স্পিডবোট

- উত্তরবঙ্গে মোট ১২ বিপর্যয় মোকাবিলা দল

-আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার ও জলপাইগুড়িতে ২টি করে এনডিআরএফের দল

- বন্যা পরিস্থিতির জেরে ক্ষতিগ্রস্ত কমপক্ষে ৭০ হাজার মানুষ

- এখনও পর্যন্ত ৮০০ ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছে

নবান্ন সূত্রে খবর, বন্যার জেরে দুই বঙ্গে এখনও পর্যন্ত একশো সত্তর জনের মৃত্যু হয়েছে। উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

দক্ষিণবঙ্গের পর উত্তরবঙ্গেও বন্যা পরিস্থিতি। পরিস্থিতির ওপর সারাক্ষণই নজরদারি চলছে। ত্রাণ বিলি ও উদ্ধারকাজেও নজর রাখা হচ্ছে। দেশের বন্যা পরিস্থিতি নিয়েও উদ্বিগ্ন রাজ্য।

জেলার বালুরঘাট, কুশমণ্ডি, গঙ্গারামপুর ও কুমারগঞ্জের অবস্থা খারাপ হয়েছে। জেলায় তিরিশ হাজারের বেশি মানুষ ত্রাণশিবিরে। মালদহের মানিকচকে পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। গঙ্গা ও ফুলহার নদীতে জল বাড়ায় বিপত্তি।

পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে জলপাইগুড়ি,আলিপুরদুয়ার ও কোচবিহারে।

কোচবিহারে পাঁচশোর বেশি ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছে। সোমবার ভেলাকোপায় যান উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। এলাকায় রেশন দোকান বন্ধে ক্ষোভ ছড়ায়। শেষপর্যন্ত মালিককে ধমক দিয়ে রেশন দোকান খোলান তিনি।  জলপাইগুড়িতে ধূপগুড়ির বারোঘরিয়ায় নতুন করে জল ঢুকেছে। ফলে, রেললাইনেই আস্তানা গেড়েছেন বহু মানুষ।

First published: 06:37:11 PM Aug 15, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर