‘বাংলায় শান্তি আছে, পাহাড়েও শান্তি চাই’, কঠোর পদক্ষেপ নিতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ মুখ্যমন্ত্রী

Jun 15, 2017 06:42 PM IST | Updated on: Jun 15, 2017 06:42 PM IST

#কলকাতা: বাংলায় শান্তি আছে, পাহাড়েও শান্তি চাই। কেউ আইন ভাঙলে কড়া ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন। মোর্চার তাণ্ডব নিয়ে প্রতিক্রিয়া মুখ্যমন্ত্রীর।

পাহাড়ে মোর্চা হিংসাত্মক আন্দোলন শুরুর আগেই তা দমন করতে চাইছে রাজ্য সরকার। এজন্য লুকনো অস্ত্র উদ্ধারের পাশাপাশি অস্ত্র সরবরাহের পথও বন্ধ করতে উদ্যোগী পুলিশ। সাধারণ মানুষের সমর্থন নিয়েই মোর্চার আন্দোলনের মোকাবিলা করা হবে। পাহাড়ে অশান্তির পিছনে কয়েকজন মোর্চা নেতার উসকানিতে রয়েছে বলে নিশ্চিত পুলিশ। এদের কড়া নজরে রাখছে পুলিশ।

‘বাংলায় শান্তি আছে, পাহাড়েও শান্তি চাই’, কঠোর পদক্ষেপ নিতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ মুখ্যমন্ত্রী

পাহাড়ে ক্রমশ হিংসার পথে ফেরার ইঙ্গিত দিচ্ছে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা। পুলিশের সঙ্গে সরাসরি সংঘাতেরও প্রস্তুতি চলছে। মোর্চার কৌশল প্রথমেই ভেস্তে দিতে পালটা ব্যবস্থা নিচ্ছে রাজ্য। অভিযুক্ত মোর্চা নেতাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থার পথে হাঁটার ইঙ্গিত মিলল। পাহাড় ইস্যুতে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কয়েকজন গুন্ডা পাহাড়কে অশান্ত করছে ৷ কোথাও অশান্তি হলে ব্যবস্থা ৷ আইন আইনের পথেই চলবে ৷ রুটিরুজি বন্ধ করে কোনও আন্দোলন নয় ৷ এটাকে আমরা দমন করবই ৷ কারও স্বার্থের জন্য গন্ডগোল মানব না ৷ দার্জিলিংকে আমরা খারাপ থাকতে দেব না ৷’

পাহাড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বহুমুখী পরিকল্পনা রাজ্যের। কিভাবে সেই কাজ হবে?

মোর্চার কর্মী-সমর্থকদের কাছে অস্ত্র পৌঁছনোর পথ বন্ধ করছে পুলিশ

একই সঙ্গে মজুত অস্ত্র উদ্ধারেও গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে

এই কারণেই বৃহস্পতিবার মোর্চা প্রধানের কার্যালয়ে হানা দেয় পুলিশ

পাহাড়ে আরও অস্ত্র উদ্ধারেও একইভাবে অভিযান হতে পারে

অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় মোর্চা মরিয়া হয়ে হিংসা ছড়ানোর চেষ্টা করবে, তা স্পষ্ট। যে কোনও ঘটনা কড়া হাতে মোকাবিলায় নির্দেশ রাজ্য প্রশাসনের।

এডিজি আইনশৃঙ্খলা অনুজ শর্মা বললেন- ‘পুলিশকে আটকাতেই অস্ত্র মজুত মোর্চার ৷ কঠোর হাতে মোকাবিলা করবে পুলিশ ৷ মোর্চার বক্তব্য সঠিক নয় ৷ উদ্ধার হওয়া অস্ত্র ঐতিহ্যের পরিচয়বাহী নয় ৷ পাহাড়ে গন্ডগোল পাকানোর চেষ্টা মোর্চার ৷ পুলিশকে লক্ষ করে পাথর ছোড়া হচ্ছে ৷ আইন মেনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে ৷’

কড়া অবস্থানের পাশাপাশি পাহাড়ের মানুষের পাশে থাকতেও কৌশলী পদক্ষেপ করছে রাজ্য। রাজ্য প্রশাসনের সিদ্ধান্ত, বেশ কয়েকটি বিষয় মাথায় রেখে পাহাড়ে কাজ করবে পুলিশ।

সাধারণ মানুষ এমনকি মোর্চা সমর্থকদের সঙ্গেও সংঘাত এড়িয়ে কাজ করা ৷ রাজ্যের অবস্থান তুলে ধরা ৷ এদিন মোর্চা প্রধানের কার্যালয়ে অভিযানের সময় পুলিশকে কার্যত ঘিরে ফেলেছিলেন মোর্চা সমর্থকরা ৷ প্রবল উত্তেজনাতেও মাথা ঠাণ্ডা রেখে কাজ করেন দায়িত্বপ্রাপ্ত ৩ আইপিএস ৷

যদিও পুলিশের মোকাবিলায় পালটা চাপ তৈরির রাস্তায় গোর্খা জনমুক্তি মোর্চাও। স্নায়ুর চাপের খেলায় মোর্চাকে পাহাড়েই ঘিরে ফেলার পথে হাঁটছে পুলিশ।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES