‘কথায় কথায় দাঙ্গা করতে আসে বিজেপি, হিংসা ছড়াতে এলে দু’পক্ষকেই পেটান ’ হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর

May 30, 2017 05:20 PM IST | Updated on: May 30, 2017 05:20 PM IST

#কলকাতা: গতকালই ঘোষণা করেছিলেন। আজ, প্রশাসনিক বৈঠকে তাতে সরকারি সিলমোহর দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। কেন্দ্রের গবাদি বিধি এরাজ্যে চালু হবে না বলে জানিয়ে দিলেন। যে উত্তর চব্বিশ পরগনায় আজ প্রশাসনিক বৈঠক করেন তিনি, সেখানে আইনশৃঙ্খলা, সংঘর্ষ ও গরু পাচার নিয়ে অভিযোগ রয়েছে। তাই পুলিশকেও কড়া ধমক।

ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী উত্তর চব্বিশ পরগনায় বাড়ছে অপরাধ। কখনও জাতি হিংসা। কখনও বা অন্য কোনও অপরাধ। কী পদক্ষেপ নিচ্ছে পুলিশ? উত্তর চব্বিশ পরগনার প্রশাসনিক বৈঠকে সরাসরি জানতে চাইলেন মুখ্যমন্ত্রী। জেলায় দাঙ্গাকারীদের কড়া হাতে দমন করার নির্দেশ দিলেন তিনি।

‘কথায় কথায় দাঙ্গা করতে আসে বিজেপি, হিংসা ছড়াতে এলে দু’পক্ষকেই পেটান ’ হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর

গরুপাচার নিয়ে এই জেলার পুলিশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে পুলিশকে তা বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিন তিনি বলেন, ‘কথায় কথায় দাঙ্গা করতে আসে বিজেপি ৷ দাঙ্গা করলে ক্ষমা নেই ৷ হিংসা ছড়াতে এলে দু’পক্ষকেই পেটান ৷ গুন্ডাদের দমন করতে হবে ৷ গরুপাচার বন্ধ করতেই হবে ৷’

গেরুয়াশিবিরের পাশাপাশি, দলীয় নেতাকর্মীদেরও বার্তা দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। টিটাগড়ে জাহাজ কারখানায়, জোড়াফুল শিবিরের স্থানীয় নেতাদের দখলদারি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর ধমকের মুখে পড়েন পুলিশকর্তারা। বারাসত কলেজে নিয়মিত গন্ডগোল নিয়েও প্রশ্ন তোলেন মুখ্যমন্ত্রী।

জেলার বিভিন্ন অংশে শব্দদূষণ বেড়ে যাওয়া নিয়েও আশঙ্কা প্রকাশ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাতে লাগাম পরানোর নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES