এবার থেকে LTC-র আওতায় অধ্যাপকরা !

Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Jan 07, 2017 08:22 PM IST
এবার থেকে LTC-র আওতায় অধ্যাপকরা !
Photo : AFP
Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Jan 07, 2017 08:22 PM IST

#কলকাতা: অধ্যাপকদের অবসর নেওয়ার সময়সীমা বাড়ছে। এবার থেকে বাষট্টিতে অবসর নেবেন তাঁরা। শুধু তাই নয়, হেলথ স্কিমের আওতায় কম খরচে চিকিৎসার সুযোগ পাবেন। দশ বছরের কর্মজীবনে মিলবে দেশে বেড়ানোর সুযোগ। কুড়ি বছর পর বিদেশভ্রমণের খরচও দেবে সরকার। এর পাশাপাশি আগামী ছ'মাসের মধ্যে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপকদের শূন্যপদ পূরণের আশ্বাসও দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে এখানেই শেষ হচ্ছে না, মুখ্যমন্ত্রী এদিন ঘোষণা করেন, চাকরির ১০ বছর পর LTC (Leave Travel Concession) পাবেন অধ্যাপকরা ৷ দেশের ভিতরে ভ্রমণের সুযোগ ৷ চাকরির ২০ বছর পর আরও বেশি সুযোগ ৷ অর্থাৎ LTC-তে বিদেশে ভ্রমণেরও সুযোগ থাকছে ৷

নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে এদিন থিকথিকে ভিড়। চেয়ারে ওয়েবকুটা, জুটা, আবুটা-র মতো বামপন্থী শিক্ষক-অধ্যাপক সংগঠনগুলির সদস্য সংখ্যাই বেশি। মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রীর একের পর এক ঘোষণা ও সঙ্গে সঙ্গে স্বতঃস্ফূর্ত হাততালির আওয়াজে কান পাতাই দায় নেতাজি ইন্ডোরে। শনিবার অধ্যপকদের কনভেনশনে আক্ষরিক অর্থেই যেন কল্পতরু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অধ্যাপকদের জন্য ওয়েস্টবেঙ্গল হেলথ স্কিম চালু করার ঘোষণাও করেন মুখ্যমন্ত্রী। কী আছে এই স্বাস্থ্য প্রকল্পে?

অধ্যাপকদের স্বাস্থ্য প্রকল্প

- অধ্যাপকদের পরিবারের সদস্যরাও এই প্রকল্পের আওতায় আসবেন

- সরকারি-বেসরকারি সব হাসপাতালেই মিলবে এই প্রকল্পের সুযোগ

- রাজ্যের বাইরের হাসপাতালেও হেলথ স্কিমের সুযোগ পাবেন অধ্যাপকরা

একইসঙ্গে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকদের শূন্যপদ পূরণেরও আশ্বাস দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এখানেই শেষ নয়। এদিন শিক্ষামহলের জন্য আরও একগুচ্ছ ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী।

 শিক্ষাবন্ধু মুখ্যমন্ত্রী

- উচ্চশিক্ষার জন্য ছুটি পাবেন অধ্যাপকরা

- কর্মজীবনে মোট ২৪ মাস সবেতন ছুটি মিলবে

- সরকারি কর্মচারিদের মতো এলটিসি-র সুযোগ পাবেন অধ্যাপকরাও

- চাকরির ১০ বছর পর মিলবে দেশের ভিতর ভ্রমণের সুযোগ

- ২০ বছর পর বিদেশে বেড়ানোর খরচও দেবে সরকার

- অশিক্ষক কর্মচারী এবং পার্টটাইম অধ্যাপকদের চিকিৎসার জন্য স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প

এদিন কনভেনশনে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, তাঁর কাজের সমালোচনা হোক। কিন্তু অভিমানে তাঁকে যেন ভুলে যেন না যায় শিক্ষাসমাজ।

First published: 08:22:24 PM Jan 07, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर