রূপার বাড়িতে CID, পৌঁছলেন দুই বিজেপি নেতাও

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jul 29, 2017 02:43 PM IST
রূপার বাড়িতে CID, পৌঁছলেন দুই বিজেপি নেতাও
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jul 29, 2017 02:43 PM IST

#কলকাতা: শিশুপাচারকাণ্ডে সিআইডি জিজ্ঞাসাবাদের মুখে বিজেপি নেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায়। শনিবার সিআইডির চার জনের একটি দল রূপার টালিগঞ্জের প্রিন্স গোলাম মহম্মদ শাহ রোডের বাড়িতে যান। ওই দলে রয়েছেন স্পেশাল অপারেশন গ্রুপের দুই অফিসার ও প্রোটেকশন অব উইমিন অ্যান্ড চিলড্রেনের দুই অফিসারও। গোটা জিজ্ঞাসাবাদ পর্ব ভিডিও রেকর্ডিং করা হচ্ছে। সঙ্গে রয়েছেন রূপা গঙ্গোপাধ্যায়ের আইনজীবীও। সিআইডি-কে সহযোগিতার কথা বলেছেন রূপা।

জিজ্ঞাসাবাদ চলাকালীন রূপার বাড়িতে যান বিজেপি নেতা কনক দেবনাথ ও জয়প্রকাশ মজুমদার ৷ তারা বলেন, ‘রূপা ষড়যন্ত্রের শিকার, পাশে দাঁড়াতে এসেছি ৷’

এদিকে জলপাইগুড়ি শিশুপাচারকাণ্ডে ধৃত জুহি চৌধুরী ও চন্দনা চক্রবর্তীকে নিয়ে সিআইডির একাধিক প্রশ্নের মুখে রূপা।

সিআইডি-র প্রশ্ন

- শিশুপাচারে কি আর্থিক লাভবান হয়েছেন রূপা?

- তাঁর আয়করের নথি খতিয়ে দেখবে সিআইডি

- জুহি চৌধুরী ও চন্দনা চক্রবর্তীকে কি চেনেন রূপা?

- তাঁদের কি দিল্লিতে নিয়ে গিয়েছিলেন?

- তাদের সঙ্গে একইদিনে বিমানের টিকিট কাটেন রূপা

- জুহি-চন্দনাকে নিয়েই কি দিল্লিযাত্রা?

- এনজিও-র আড়ালে শিশুপাচারের কথা জানতেন?

- কেন এনজিও-র হয়ে তদবির করেন দিল্লিতে?

- জুহি ও চন্দনাকে কী ধরনের সাহায্য করেন?

- মোটা টাকার বিনিময়ে কি সাহায্য করেন?

জুহিকে চিনলেও চন্দনা চক্রবর্তীকে চিনতেন না বলে জিজ্ঞাসাবাদে জানান বিজেপি নেত্রী ৷ বেশ কিছু নথি দেখানো হয় রূপাকে ৷ সে বিষয়ে প্রশ্নে নিরুত্তর থাকেন নেত্রী ৷ রূপার কাছ থেকে বেশ কিছু নথি বাজেয়াপ্ত করেছেন সিআইডি অফিসাররা ৷ জিজ্ঞাসাবাদ পর্ব ভিডিও রেকর্ডিং করা হয় ৷

বিজেপি কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গী ও বিজেপি নেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায়কে জলপাইগুড়ি শিশু পাচার কাণ্ডে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠিয়েছিল রাজ্য গোয়েন্দা দফতর ৷ হাজিরা না দেওয়ায় নোটিস পাঠিয়ে বাড়িতে হানা দিল গোয়েন্দা দল ৷

জলপাইগুড়ি শিশু পাচার কাণ্ডে ধৃত অভিযুক্ত জুহি চৌধুরী ছিলেন, বিজেপি মহিলা মোর্চার সাধারণ সম্পাদক ৷ শিশু পাচার কাণ্ডে জুহির নাম সামনে আসার পর থেকেই আঙুল উঠেছিল বিজেপি নেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায়ের দিকে ৷ মহিলা মোর্চার দায়িত্বভার সামলানোর সঙ্গে সঙ্গে রূপার ঘনিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলেন জুহি বলেই অভিযোগ করেন বিরোধীরা ৷

অন্যদিকে, জলপাইগুড়ি শিশুপাচারচক্রে ধৃত মূল অভিযুক্ত চন্দনা চক্রবর্তী দাবি করেছিলেন, চন্দনা চক্রবর্তীর হয়ে হোম নিয়ে দিল্লিতে তদ্বির করেন রূপা গঙ্গোপাধ্যায় ও কৈলাশ বিজয়বর্গী। জুহি চৌধুরীর মাধ্যমেই বিজেপি নেতৃত্বের সঙ্গে যোগাযোগ। চন্দনার সঙ্গে রূপার পরিচয়ও করিয়ে দেন জুহি। বিনিময়ে হোমের ও চালসায় রিসর্টের মালিকানা নিয়ে কথা হয়।

First published: 01:25:55 PM Jul 29, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर