‘গ্রামের মানুষ না চাইলে পাওয়ার স্টেশন হবে না, বিধানসভায় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Feb 08, 2017 04:29 PM IST
‘গ্রামের মানুষ না চাইলে পাওয়ার স্টেশন হবে না, বিধানসভায় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Feb 08, 2017 04:29 PM IST

#ভাঙড়: অধিগ্রহণ নয়, গুজবের জেরেই ভাঙড়ে তোলপাড়। বিধানসভায় মন্তব্য মুখ্যমন্ত্রীর। স্থানীয় বাসিন্দারা না চাইলে ভাঙড়ে পাওয়ার স্টেশন যে হবে না তা ফের একবার স্পষ্ট করে দিয়েছেন তিনি। আজই, ভাঙড়ে মৃত্যু মামলায় তদন্তের অগ্রগতি রিপোর্ট চেয়েছে হাইকোর্ট। তলব করা হয়েছে তদন্তকারী অফিসারকেও। নিহতদের পরিবারের একজনকে চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে রাজ্য।

পাওয়ার স্টেশন নিয়ে ঘিরে ভাঙড়ে তোলপাড়। বিক্ষোভ-অবরোধ, পুলিশের ওপর হামলা, গুলি বা বোমাবাজি, বাদ যায়নি কিছুই। কিন্তু, কেন এই উত্তেজনা? বিরোধীরা বারবারই জমি অধিগ্রহণের পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন তুলছিল। কিন্তু, শাসকদলের বরাবরের অভিযোগ, গুজব ছড়িয়ে হিংসার রাজনীতি চলছে ভাঙড়ে। বুধবার বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রীর গলাতেও সেই সুর।

বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন,  ‘ভাঙড়ে জমি অধিগ্রহণ নিয়ে কোনও সমস্যা হয়নি। শুধু ১১ জন ক্ষতিপূরণ নেননি। কিন্তু, টাওয়ার তৈরি নিয়ে গুজব ছড়ানো হয়েছে। রটানো হয়েছে অবৈজ্ঞানিক কথা। গ্রামের মানুষ না চাইলে ভাঙড়ে পাওয়ার স্টেশন হবে না।’

একইসঙ্গে ভাঙড়ে আন্দোলন চলাকালীন গুলিতে মৃত্যু হয় দু’জনের ৷ আহত হয় একজন ৷ মৃতদের পরিবারকে চাকরি দেওয়ার কথা এদিন বিধানসভায় ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী ৷ তিনি বলেন, ‘ভাঙড়ে যারা মারা গিয়েছেন ৷ তাদের পরিবার কাজ চাইলে দেওয়া হবে ৷’

আরও পড়ুন 

ভাঙড় মৃত্যু মামলায় কেস ডায়েরির সঙ্গে তদন্তকারী অফিসারকে তলব বিচারপতির

বুধবারই ভাঙড়ে মৃত্যু মামলায় তদন্তের অগ্রগতি রিপোর্ট চেয়েছে হাইকোর্ট। একইসঙ্গে, তদন্তকারী অফিসারকেও তলব করেন বিচারপতি জয়মাল্য বাগচি।

First published: 04:29:02 PM Feb 08, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर