অজানা রোগে আক্রান্ত ছেলে, অবসাদ গোটা পরিবারে

Mar 20, 2017 07:32 PM IST | Updated on: Mar 20, 2017 07:32 PM IST

#কলকাতা: অজানা রোগ ঠিক না,রোগ নির্ণয় অজানা থাকায় বিছানায় শয্যাসায়ী ছেলের আর্ত চিৎকার অসহ্য হয়ে উঠেছে। তাই ছেলেকে নিয়ে জীবন শেষ করে দেওয়ার কথাও ভাবছেন ত্রিবেনীর দে দম্পতি। প্রতি পাঁচ মিনিটে 'ও মা ও বাবা লাগছে' বলে ছেলের আর্তনাদ কোন মা বাবাই বা সহ্য করতে পারে।

অজানা রোগে আক্রান্ত ছেলে, অবসাদ গোটা পরিবারে

গত বছর ৫ ই আগস্ট স্কুলে সহ পাঠিদের সঙ্গে খেলার সময় পরে গিয়ে আহত হয় ক্লাস থ্রির ছাত্র সৌমিক দে।তার বাঁ পায়ে চোট লাগে।প্রথমে স্থানীয় ডাক্তার পরে নামজাদা হাসপাতাল কলকাতার অ্যাপোলো থেকে ব্যাঙ্গালোরে NIMHNS হয়ে সঞ্জয় গান্ধী হাসপাতাল,কখোনো নিউরো কখোনো অর্থোপেডিক,পরীক্ষা নিরিক্ষার পর চিকিৎসা হয়েছে অনেক।কিন্তু রোগ সারে নি।ছেলের চিকিৎসায় গত সাত মাসে সর্ব শান্ত হয়েছেন কার্তীক দে।

কোনও জায়গাতেই রোগ নির্ণয় করতে পারেনি চিকিৎসক। ফলে সৌমিককে বাড়িতে ফিরিয়ে আনতে হয়েছে। কোথায় গেলে সঠিক চিকিৎসা হবে বুঝে উঠতে পারছেন না সৌমিকের মা সুজাতা দেবীও। এক সময় ঠিকাদারী করলেও বর্তমানে বেকার কার্তীক বাবু। বাবার মৃত্যুর পর বৃদ্ধা মায়ের পেনশনে চলে সংসার। এর উপর ছেলের চিকিৎসা মাথা কাজ করে না অনেক সময়,অবসাদ লাগে,ছেলের মুখের দিকে তাকিয়ে দিন রাত বসে থাকেন দে দম্পতি। সৌমিক সুস্থ্য হয়ে উঠুক চাইছেন তার প্রতিবেশিরাও।কিন্ত কিভাবে জবাব নেই কারও কাছে।

RECOMMENDED STORIES