১৪৮ ওয়ার্ডের পুরভোটে বিজেপি মাত্র ৩, মিশন বাংলা এখনও বহু দূর

May 18, 2017 11:45 AM IST | Updated on: May 18, 2017 11:45 AM IST

#কলকাতা: মাহালি দম্পতির তৃণমূলে যোগদানের ধাক্কা এখনও কাটিয়ে ওঠা যায়নি। তারই মধ্যে বিজেপির মাথাব্যথা হয়ে এল ৭ পুরভোটের ফল। পাহাড় দূরে থাকা, সমতলের মুখ থুবড়ে পড়ল গেরুয়া শিবির। হোক না পুরভোট, পঞ্চায়েতের আগে এটাই ছিল শ্যাডো প্র্যাকটিস ৷ রায়গঞ্জে ১ টি ও পুজালিতে ২টি মোট ৩টি আসন নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হচ্ছে বিজেপিকে। এই ফলের জন্য তৃণমূলের ভোট লুঠকে দায়ী করলেও সাংগঠনিক ব্যর্থতাও সামনে চলে আসছে। নেতৃত্ব যাই দাবি করুক, মিশন বাংলার পথে এখনও বহু রাস্তা পেরোতে হবে বিজেপিকে।

কাঁথির উপ-নির্বাচনেও বাম-কংগ্রেসকে টপকে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসাটা স্রেফ চমক? ৭ পুরসভার নির্বাচনে ফলপ্রকাশের পর এই প্রশ্নের মুখে পড়তেই হচ্ছে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বকে।

১৪৮ ওয়ার্ডের পুরভোটে বিজেপি মাত্র ৩, মিশন বাংলা এখনও বহু দূর

পুজালিতে ১ টি ও রায়গঞ্জে ২ টি আসন জিতেছে বিজেপি

ডোমকলে প্রার্থী দিলেও খাতা খুলতে পারেনি গেরুয়া শিবির

বুথ ভিত্তিক ভোটের হারেও অনেক পিছিয়ে বিজেপি

অনেকক্ষেত্রেই বাম কিংবা কংগ্রেসেরও পরে রয়েছেন বিজেপি প্রার্থী

২০২১ সালে রাজ্যে ক্ষমতায় আসতে গত মাসেই অমিত শাহের নেতৃত্ব শুরু হয়েছে মিশন বাংলা। ভুবনেশ্বরে দলের শীর্ষবৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হওয়ার পর রাজ্যে আসেন সর্বভারতীয় সভাপতি। নকশালবাড়ি থেকে রাজারহাটে ঘুরে দলের ভিত শক্ত করার কাজেও খামতি রাখেননি অমিত শাহ। তার পরও পুরনির্বাচনে এভাবে মুখ থুবড়ে পড়তে হল কেন? রাজ্য নেতৃত্বের জবাবটা যেন তৈরিই ছিল।

রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের অভিযোগ, তৃণমূল ভোট লুঠ করেছে ৷পশ্চিমবঙ্গে কেন্দ্রীয় বাহিনী ছাড়া কোনও ভোটই সম্ভব নয়। ফলপ্রকাশের পর রাজ্যপালের কাছেও এই দাবিতে সরব হলেন দিলীপবাবুরা।

৭ পুরসভার ভোটে বেশ কিছু ক্ষেত্রেই সন্ত্রাসের অভিযোগ শাসকদলের বিরুদ্ধে। ইটিভি নিউজ বাংলার ক্যামেরাতেও ধরা পড়ে অস্ত্র হাতে দুস্কৃতীদের দাপাদাপির ছবি। তবে প্রশ্ন এর পরেও থাকছে,

শাসকদলের পালটা প্রতিরোধ কেন গড়ে তোলা গেল না?

বুথস্তর পর্যন্ত সংগঠন না থাকাতেই এই কি এই অবস্থা?

ভোটের দিন ৪ পুরসভাতেই সেভাবে সক্রিয় ছিলেন না বিজেপি কর্মীরা

যথেষ্ট কর্মী না থাকাতেই কি ভুগতে হচ্ছে না বিজেপিকে?

পুজালি দম্পতিকে হাইজ্যাক করে প্রথম ধাক্কাটা দিয়েছিল তৃণমূল। পুরনির্বাচনের ফলে আরও অনিশ্চিত হয়ে পড়ল বিজেপির ক্ষমতা দখলের সাধ। ঘুরে দাঁড়াতে এবার আরও মরিয়া লড়াই করতে হবে রাজ্য বিজেপিকে।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES