লগ্নির ক্ষেত্র প্রস্তুত হওয়া সত্ত্বেও নোট বাতিলের প্রভাব নিয়ে শঙ্কিত বিশ্ব বঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলন

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jan 19, 2017 06:29 PM IST
লগ্নির ক্ষেত্র প্রস্তুত হওয়া সত্ত্বেও নোট বাতিলের প্রভাব নিয়ে শঙ্কিত বিশ্ব বঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলন
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jan 19, 2017 06:29 PM IST

#কলকাতা: গ্লোবাল বিজনেস সামিটে শুধু বিনিয়োগ টানাই নয়, রাজ্যকে নতুনভাবে তুলে ধরতেও সচেষ্ট রাজ্য সরকার। কুড়ি ও একুশে জানুয়ারির সম্মেলনে যোগ দেবেন দেশ-বিদেশের শিল্পপতিরা। বিনিয়োগকারীদের সামনে তুলে ধরা হবে এরাজ্যের নানান সুযোগ সুবিধার কথা। কিন্তু রাজ্যের এই তৃতীয় শিল্প সম্মেলনে নোট বাতিলের জেরে তৈরি আর্থিক মন্দার প্রভাব পড়ার আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

শিল্পের জন্য বাংলার মাটি কতটা উপযুক্ত তারই খতিয়ান তুলে ধরা হবে শিল্প সম্মেলনে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পাখির চোখ এখন শিল্প। ক্ষমতায় আসার পর থেকেই শিল্পপতিদের কাছে রাজ্যের উজ্জ্বল ভাবমূর্তি তুলে ধরেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । বনধ-হরতাল সংস্কৃতি সরিয়ে শিল্পপতিদের কাছে রাজনৈতিক স্থিরতার বার্তা দিয়েছেন। লগ্নি টানতে বিদেশ

সফরেও গেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই পরিস্থিতিতে তৃতীয়বারের জন্য বেঙ্গল গ্লোবাল বিজনেস সামিট বা বিশ্ব বঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। মিলনমেলায় ২০ ও ২১ জানুয়ারি দেশ-বিদেশের শিল্পপতিরা জমায়েত হবেন।

বিনিয়োগের ক্ষেত্র প্রস্তুত, বিনিয়োগের সম্ভাবনাও রয়েছে। কিন্তু নোট বাতিলের জেরে সারা দেশে যে আর্থিক মন্দা তৈরি হয়েছে, তা বিনিয়োগের প্রস্তাবের উপর প্রভাব ফেলতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন অর্থনীতিবিদরা। শিল্পের জন্য প্রয়োজন স্থায়ী সামাজিক পরিকাঠামো এবং বহু একর জমি। অর্থনীতিকদের সঙ্গে তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরাও মনে করছেন, এই ধরনের শিল্প সম্মেলন, দেশ-বিদেশের শিল্পপতিদের কাছে ভালো বার্তাই পৌঁছে দেবে।

শিল্প-বাণিজ্য সম্মেলনের হাত ধরেই ভবিষ্যতে রাজ্যে বিনিয়োগের যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে। যত বেশি বিনিয়োগ আসবে রাজ্যে তত কর্মসংস্থানও বাড়বে। দেশ-বিদেশ মিলিয়ে এই দুদিনের সম্মেলনে সাড়ে পাঁচ হাজার শিল্প প্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকবেন। বিদেশি প্রতিনিধি থাকবেন ৩০০-রও বেশি। গতবছর ২ লক্ষ ৫০ হাজার কোটি টাকা প্রস্তাব এসেছিল শিল্প-বাণিজ্য সম্মেলনের মঞ্চে। এবার সেই রেকর্ড ছাপিয়ে যাবে বলে আশা করছে রাজ্য সরকার।

First published: 06:29:19 PM Jan 19, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर