আলিপুর বৃদ্ধ খুনের ঘটনা রহস্যেই ঢাকা, এখনও অধরা অভিযুক্তরা

Aug 09, 2017 07:18 PM IST | Updated on: Aug 09, 2017 07:18 PM IST

#কলকাতা: নিউ আলিপুরে বৃদ্ধ খুনের চার দিন পরও অধরা অভিযুক্তরা। কারা যুক্ত সে ব্যাপারেও অন্ধকারে পুলিশ। নিউ আলিপুরের দুর্গাপুর ব্রিজ লাগোয়া একটি সিসিটিভির ফুটেজে ওই রাতে তিন সন্দেহভাজনের গতিবিধি রহস্য বাড়িয়েছে। পুলিশের নজরে বৃদ্ধের খোয়া যাওয়া মোবাইলটিও। খুনের পর দু’বার মোবাইল থেকে ফোন করা হয়েছে বলে দাবি তদন্তকারীদের।

নিউআলিপুরে অভিজাত এলাকায় শ্বাসরোধ করে বৃদ্ধ খুন। ঘটনার চার দিন পরও কাউকে গ্রেফতার করা তো দূরের কথা, খুনে কারা যুক্ত সেটাই বুঝে উঠতে পারছে না পুলিশ। স্পষ্ট নয় খুনেরও মোটিভও। তদন্তে দু’টি গুরুত্বপূর্ণ সূত্র পাওয়া গেছে দাবি তদন্তকারীদের।

আলিপুর বৃদ্ধ খুনের ঘটনা রহস্যেই ঢাকা, এখনও অধরা অভিযুক্তরা

ঘটনাস্থল থেকে একশো মিটার দূরে দূর্গাপুর ব্রিজ। ছয়ই অগাস্ট রাত দু’টো থেকে দু’টো পাঁচের মধ্যে ওই এলাকায় তিন জনের গতিবিধি সন্দেহ বাড়িয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর,

- ফুটেজে ৩ জনকে দুর্গাপুর ব্রিজ পেরোতে দেখা গিয়েছে

- ওই ৩ জন হত্যাকাণ্ডে যুক্ত থাকতে পারে বলে সন্দেহ

দুর্গাপুর ব্রিজ থেকে নিহত মলয় মুখোপাধ্যায়ের বাড়ি যাওয়ার রাস্তায় আরও দু’টি জায়গায় সিসিটিভি লাগান আছে। একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের সামনে। অন্যটি একটি পেট্রোল পাম্পে। ওই সিসিটিভি গুলির ফুটেজও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। সন্দেহজনক ব্যক্তিরা মলয় মুখোপাধ্যায়ের বাড়ি গেলে ওই সিসিটিভিতে ধরা পড়বেই বলে দাবি তদন্তকারীদের।

নিহত মলয় মুখোপাধ্যায়ের খোয়া যাওয়া মোবাইলটির টাওয়ার লোকেশনের উপরও নজর রেখেছে পুলিশ। পুলিশের দাবি, খুনের পর মোবাইলটি দুবার অন করে ফোন করা হয়।

- সোমবার সন্ধে ৬টা নাগাদ একটি ফোন করা হয়

- দ্বিতীয় ফোনটি করা হয় মঙ্গলবার দুপুর ১২টা নাগাদ

- কোথায়, কাকে, কেন ফোন, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ

- টাওয়ার লোকেশন দেখে জয়নগর ও লাগোয়া এলাকায় তল্লাশি চালান হয়

ইতিমধ্যেই মলয় মুখোপাধ্যায়ের বাড়িতে কাজ করতে আসা কাঠ ও কল মিন্ত্রিদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ। তবে বৃদ্ধ খুন রহস্যের জট কাটাতে সিসিটিভি ফুটেজ ও খোয়া যাওয়া মোবাইলই ভরসা তদন্তকারীদের।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES