বসিরহাটের বাসিন্দার মৃত্যুকে ঘিরে উত্তাল RG KAR, বিজেপিকে ঢুকতে বাধা

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jul 06, 2017 04:52 PM IST
বসিরহাটের বাসিন্দার মৃত্যুকে ঘিরে উত্তাল RG KAR, বিজেপিকে ঢুকতে বাধা
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jul 06, 2017 04:52 PM IST

#কলকাতা: এবার মৃত্যু নিয়ে রাজনীতির অভিযোগ উঠল BJP-র বিরুদ্ধে ৷ বসিরহাটের বাসিন্দার মৃত্যু ঘিরে ধুন্ধুমার কলকাতার আরজি কর হাসপাতাল ৷ বৃহস্পতিবার সকালে আরজিকরে মৃত্যু হয় বসিরহাটের কার্তিক ঘোষের ৷ মৃত্যুর খবর পেয়েই হাসপাতালে যান বিজেপি নেত্রী লকেট ও গেরুয়া বাহিনীর নেতা জয়প্রকাশ ৷ মৃতের পরিজনেরা তাদের বাধা দিলে শুরু হয় ঝামেলা ৷ এর মাঝে পড়ে হয়রান সাধারণ মানুষ ৷

বসিরহাট নিয়ে রাজনীতির আঁচ গনগনে রাখতে দেহ দখলের মরিয়া চেষ্টা বিজেপির। আজ বসিরহাটের কার্তিক ঘোষের মৃত্যুর খবর পেয়েই কার্যত ঝাঁপিয়ে পড়ে বিজেপি। দফায় দফায় হাসপাতালে ছুটে যান গেরুয়াশিবিরের নেতারা। নিহতের পরিজনদের বাধায় ধুন্ধুমার কাণ্ড বাধে হাসপাতাল চত্বরে। শেষপর্যন্ত, খালিহাতেই ফিরতে হয় দিলীপ ঘোষ-কৈলাস বিজয়বর্গীদের।

বসিরহাটকে গোটা রাজ্যে উদাহরণ করে তুলতে চায় বিজেপি। বৃহস্পতিবার, সেখানকার বাসিন্দা কার্তিক ঘোষের মৃত্যু হয় আর জি করে। খবর পেয়েই হাসপাতালকে টার্গেট করেন বিজেপি নেতারা। নিহতকে আরএসএস কর্মী বলে দাবি করে শুরু হয় দেহ দখলের জন্য কাড়াকাড়ি।

বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের দাবি, মৃত কার্তিক ঘোষ RSS কর্মী ৷ সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে তাঁর ৷ এদিকে মৃতের পরিবারের লোক বিজেপি নেতা-নেত্রীদের বাধা দেন ৷ এতেই হাসপাতাল চত্বরে ছড়ায় উত্তেজনা ৷ শুরু হয় ধস্তাধস্তি। প্রথমে বাধা পেয়ে লকেট ও জয়প্রকাশ ফিরে গেলেও পরে আবার কার্তিক ঘোষের মৃতদেহ নিতে হাসপাতালে আসেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ ও অন্যতম বিজেপি শীর্ষ নেতা কৈলাস বিজয়বর্গী ৷

মুখে রাজনৈতিক স্বার্থের কথা অস্বীকার করলেও, হাল ছাড়েনি গেরুয়াশিবির। বিকেল গড়াতেই ময়দানে নামেন রাজ্য ও কেন্দ্রের বিজেপি নেতারা। আর জি করে পৌঁছন দিলীপ ঘোষ ও কৈলাস বিজয়বর্গী। কিন্তু, এবারেও জোরালো ধাক্কা খেতে হয় তাঁদের। তাদেরও ঢুকতে বাধা দেয় মৃতের পরিজনেরা ৷ জোর করে ঢুকতে চাইলে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন মৃতের বাড়ির লোক ৷

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে হাসপাতালে মোতায়েন পুলিশ বাহিনী ৷ হাসপাতাল সূত্রে খবর, ময়নাতদন্তের জন্য মৃত কার্তিক ঘোষের মৃতদেহ হাসপাতালেই রাখা আছে ৷ সব কাজ শেষ হলে তা তুলে দেওয়া হবে পরিবারের হাতে ৷

এদিকে বাধা পাওয়ার পরও কেন গেরুয়া শীর্ষ নেতৃত্ব জোর করে হাসপাতালে ঢুকতে চাইলেন সেই নিয়ে উঠছে প্রশ্ন ৷ এই উত্তেজনার জেরে ব্যাহত হয় হাসপাতালের পরিষেবা ৷

হাসপাতাল থেকে শূন্যহাতেই ফিরতে হয়েছে বিজেপি নেতাদের। দেহ দখল করতে না পারলেও, সমান্তরাল কৌশল চালিয়ে যাচ্ছে গেরুয়াশিবির।

First published: 04:28:38 PM Jul 06, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर