বিজেপির মিছিলে বোমাবাজি, চলল জলকামান-লাঠি

May 25, 2017 01:28 PM IST | Updated on: May 25, 2017 03:29 PM IST

#কলকাতা: আশঙ্কা আগেই ছিল ৷ সময় বাড়তেই সত্যি হল সেই আশঙ্কা ৷ লালবাজার অভিযানের শুরুতেই হল বোমাবাজি ৷ ব্রেবোর্ন রোডে বিজেপির মিছিল থেকে বোমা মারার অভিযোগ ৷ ব্যারিকেড দিয়ে মিছিল আটকাল পুলিশ ৷ এরপরই মিছিলের মধ্যে থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমা ছোঁড়া হয় বলে অভিযোগ ৷ গেরুয়া সমর্থকদের নিয়ন্ত্রণে ফাটানো হয় কাঁদানে গ্যাসের সেল ৷

অন্যদিকে, টি বোর্ডের সামনে মিছিল আটকালে তৈরি হয় প্রবল উত্তেজনা ৷ বিজেপি নেতা সমর্থকরা ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করলে পরিস্থিতির আরও অবনতি হয় ৷ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে জলকামান ছুঁড়ে বিজেপি সমর্থকদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করে পুলিশ ৷ লাঠিচার্জও করা হয় ৷

বিজেপির মিছিলে বোমাবাজি, চলল জলকামান-লাঠি

আরও পড়ুন 

আচমকা লালবাজারে হাজির বিজেপি, আটক বেশ কয়েকজন নেতা-কর্মী

বিজেপির লালবাজার অভিযান ঘিরে ধুন্ধুমার টি বোর্ড চত্বর। এদিন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বে মিছিল পৌঁছয় টি বোর্ড এলাকায়। সেখানে পুলিশের ব্যারিকেড মিছিল আটকে দেয়। ব্যারিকেডের ওপরে উঠে বিক্ষোভ শুরু করে কর্মী-সমর্থকরা। মাইকে বিজেপি কর্মীদের সংযত থাকার আবেদন করে পুলিশ। কিন্তু, মিছিল থেকে ইট-পাথর ছোড়ার অভিযোগ ওঠে। পুলিশকে লক্ষ করে ছোড়া হয় বোমাও।

এরপরই, বিজেপি কর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে প্রথমে জলকামান ব্যবহার করে পুলিশ। মিছিল থমকে যেতেই শুরু হয় লাঠিচার্জ। ফাটানো হয় কাঁদানে গ্যাসের শেলও। ধস্তাধস্তির মাঝে পড়ে যান দিলীপ ঘোষ। কয়েকজন কর্মীকে নিয়ে পাশেই থাপার হাউসে আশ্রয় নেন তিনি। ছত্রভঙ্গ মিছিলের মধ্যে থেকেই টি বোর্ড চত্বরে আগুন লাগানোর চেষ্টা হয়। কিন্তু, দ্রুত পরিস্থিতি আয়ত্তে আনে পুলিশ। বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মীকে আটক করা হয়। আটক করা হয় দিলীপ ঘোষকেও।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES