দাদার সঙ্গে দেখা করতে এখন অ্যাপয়েন্টমেন্ট লাগবে : আগরকর

Sep 30, 2015 04:13 PM IST | Updated on: Sep 30, 2015 04:26 PM IST

টাটা স্টিল ২৫কে ম্যারাথনের ঘোষণা অনুষ্ঠানে যোগ দিতে মঙ্গলবার শহরে এসেছিলেন অজিত আগরকর ৷ আগামী ২০ ডিসেম্বর কলকাতা ম্যারাথনে তাঁকে দৌড়তে দেখা যাবে কি না, সে তো সময়েই বলবে ৷ ভারতীয় দলের প্রাক্তন পেসার কিন্তু  নিজের অবসর জীবন এখন খুব ভালোমতোই উপভোগ করছেন ৷ কোচিং করারও কোনও চিন্তাভাবনা আপাতত নেই তাঁর ৷ দাদার শহরে এসে কী কী বললেন আগরকর, সেটাই একবার দেখে নেওয়া যাক ৷

প্রশ্ন: টাটা স্টিল ২৫ কে ম্যারাথন নিয়ে কী বলবেন আপনি ? এই ম্যারাথনে কী আপনাকে অংশ নিতে দেখা যাবে ?

দাদার সঙ্গে দেখা করতে এখন অ্যাপয়েন্টমেন্ট লাগবে : আগরকর

আগরকর: গতবছরও এই ম্যারাথন দারুণভাবে সফল হয়েছিল ৷ এবছর আরও বেশি সংখ্যায় মানুষ যে যোগ দেবেন ম্যারাথনে, সেব্যাপারে নিশ্চিত আমি ৷ রেসের অনেকগুলি ক্যাটেগরি রয়েছে ৷ আমি বেশ অনেক বছর ধরেই টাটা স্টিলের কর্মী ৷ তাই শেষপর্যন্ত যদি ম্যারাথনে আমাকে দৌড়তে দেখেন, তাহলে অবাক হবেন না ৷

Tata Steel 25k Marathon

প্রশ্ন: আপনি এখন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের শহরে ৷ একসময়ে যাঁর ক্যাপ্টেন্সিতে খেলেছেন , এখন তিনি সিএবি প্রেসিডেন্ট ৷ দাদাকে নিয়ে কী বলবেন ?

আগরকর: (একটু হেসে) দাদার সঙ্গে দেখা করতে কিন্তু এখন আমার অ্যাপয়েন্টমেন্ট লাগবে ! ও সবসময়েই একজন দারুণ লিডার ছিল ৷ সেইসঙ্গে ক্রিকেটার হিসেবেও অসাধারণ ৷ ক্রিকেট ওর হৃদয়ে বিরাজ করছে ৷ জানি ক্রিকেট প্রশাসকের কাজটা অন্য ৷ কিন্তু আমি নিশ্চিত, নিজের ক্রিকেটজীবনের মতোই ক্রিকেট প্রশাসকের ভূমিকাতেও দারুণভাবে সফল হবেন দাদা ৷

প্রশ্ন: আর কিছুদিনের মধ্যেই শুরু হবে ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ ৷ দু’দলেই প্রচুর পেসার রয়েছেন ৷ আপনার কী মনে হয় পেসার না স্পিনার, কাদের হতে চলেছে এই সিরিজ ? আর পেসারদের মধ্যে আক্রমণাত্বক মনোভাব থাকাটা কতটা জরুরি বলে মনে করেন আপনি ?

আগরকর : ‘অ্যাগ্রেশন’ বিষয়টা কিন্তু বোলিং-এর একটা অংশ ৷ কখনও কখনও উত্তেজনার বশে বোলাররা হয়তো মাত্রা ছাড়িয়ে যান ৷ কিন্তু আক্রমণাত্বক মানসিকতা একজন পেসারের থাকতেই হবে ৷ ইশান্তের এক ম্যাচ নির্বাসন হওয়াটা যদিও খুব দুঃখের ঘটনা ৷ কারণ এখন হয়তো নিজের জীবনের সেরা ফর্মে রয়েছেন ইশান্ত ৷ এইসময় সাসপেন্ড হলে খুবই খারাপ লাগে ৷ কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এমন হয়েই থাকে ৷ কেউ টেস্ট ম্যাচ মিস করতে চায় না ৷ কিন্তু ফাস্ট বোলিং উইথাউট অ্যাগ্রেশন সম্ভব নয় ৷  আর সিরিজ এবার পেসারদের হতে চলেছে না স্পিনারদের, সেটা কন্ডিশনের উপর নির্ভর করবে ৷ দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য যদি স্পিনিং ট্র্যাক তৈরি হয়, তাহলে পেসারদের বল রিভার্স সুইং করানোর অপেক্ষায় থাকতে হবে ৷

প্রশ্ন: ভবিষ্যতে আপনাকে কি কোচের ভূমিকায় দেখা যেতে পারে ?

আগরকর: সেটা ভবিষ্যতই বলবে ৷ আপাতত আমি দারুণভাবে আমার অবসর জীবন কাটাচ্ছি ৷ আমার পরিবারও খুব খুশি যে আমি বাড়িতে থাকতে পারি এখন ৷

প্রতিবেদন: সিদ্ধার্থ সরকার

ছবি: সায়ক দাস

RECOMMENDED STORIES