‘চিকিৎসা যেন ব্যবসা না হয়’,নন্দীগ্রাম দিবসের অনুষ্ঠানে ফের বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Mar 14, 2017 03:43 PM IST
‘চিকিৎসা যেন ব্যবসা না হয়’,নন্দীগ্রাম দিবসের অনুষ্ঠানে ফের বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Mar 14, 2017 03:43 PM IST

#কলকাতা: নজরুল মঞ্চে নন্দীগ্রাম দিবসের দশ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখে শোনা গেল হুঁশিয়ারি ৷ টাউন হলে বৈঠক ডেকে বেসরকারি হাসপাতালগুলির কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা ও সাবধানবাণীর পরও মিটছে না হাসপাতালগুলির বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অব্যবস্থার অভিযোগ ৷ অ্যাপোলোয় সঞ্জয় রায় থেকে মেডিকায় সুনীল পাণ্ডে ৷ প্রতি ঘটনাতেই উঠেছে হাসপাতালের দিকে অভিযোগের আঙুল ৷ এদিন আরও একবার কলকাতার বেসরকারি নার্সিংহোম ও হাসপাতালগুলিকে ফের সতর্ক করলেন মুখ্যমন্ত্রী ৷

১০ বছর আগে নন্দীগ্রামে পুলিশের গুলিতে মৃত ১৪ জন গ্রামবাসীকে স্মরণ করে ১৪ মার্চ দিনটিকে কৃষক দিবস হিসাবে ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ নজরুল মঞ্চে বিশেষ অনুষ্ঠানে মঙ্গলবার ৭৫ জনের হাতে কৃষকরত্ন পুরস্কার তুলে দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ তাঁর বক্তব্যে ১০ বছর আগের ঘটনা ছাড়াও উঠে আসে নোট বাতিল থেকে জমি আন্দোলন, শস্য বীমা থেকে হাসপাতালের প্রতি সাবধান বাণী ৷

এদিনের সভা মঞ্চ থেকে রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান বলেন, ‘কৃষকদের সাহায্যে সরকার বদ্ধপরিকর ৷ সিঙ্গুরের কৃষকদের জমি ফিরিয়ে দিয়েছি ৷ খাবার না থাকলে জীবন চলে না ৷ তাই কৃষক না থাকলে দেশ চলে না ৷’ সেই কৃষকদের জন্য ভোটের আগে শাসক দল তৃণমূলের দেওয়া প্রতিশ্রুতি আরও একবার মনে করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা যা বলি, তাই করি ৷ ভোটের জন্য মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিই না ৷ ৯০ শতাংশ কৃষককে কিষাণ ক্রেডিট কার্ড দেওয়া সম্পূর্ণ ৷ ৫ বছরে ৭০ লক্ষ মানুষ কিষাণ ক্রেডিট কার্ড পেয়েছেন ৷ এই সরকারের আমলে কৃষকদের পারিবারিক আয় বেড়েছে ৷’

এরপরই ফের মোদির নীতি ও নোটবাতিলের সমালোচনায় মুখর হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ তিনি বলেন, ‘নোটবন্দির প্রভাব পড়েছে কৃষিতে ৷ নোটবন্দিতে মৃত কৃষকদের পরিবারকে সম্মান দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে রাজ্য সরকার ৷ কৃষকদের সুবিধার্থে বাংলা ফসল বিমা চালু করা হয়েছে ৷ ক্ষতিগ্রস্ত হলে সঙ্গে সঙ্গেই ক্ষতিপূরণ কৃষকদের ৷ কর্প ইনসিওরেন্সের টাকাও দিচ্ছে রাজ্য সরকার ৷ শস্য বিমায় আর টাকা দিতে হচ্ছে না চাষিদের ৷ ধান চাষে সব বিধিনিষেধ তুলে দেওয়া হয়েছে ৷ মাটি পরীক্ষা চালু করেছে রাজ্য সরকার ৷ মাটির চরিত্র পরীক্ষা করে চাষের পরামর্শ ৷ চাষিদের ধান বিক্রি যাতে সহজ হয় তার জন্য এই ব্যবস্থা ৷’

শুধু কৃষিই নয়, একইসঙ্গে মাছ চাষেও সমান নজর রাজ্যের ৷ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মাছ চাষে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে রাজ্য ৷ ইলিশ মাছের গবেষণাগার তৈরি করা হয়েছে ৷ পেঁয়াজ চাষেও বিশেষ উদ্যোগ ৷

মাটি, পুকুর, সবুজ না থাকলে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা হয় না ৷ তাই সবুজকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে ৷ খরাপ্রবণ এলাকায় সেচের বিশেষ ব্যবস্থা ৷’

এদিনের মঞ্চ থেকে সিপিএমের সমালোচনায় সরব মুখ্যমন্ত্রী ৷ বলেন, সিপিএমের ঋণ মেটাতে হচ্ছে আমাদের ৷ ৪০ হাজার কোটি টাকা ঋণ শোধ করতে হচ্ছে কেন্দ্রকে ৷ ২৮ হাজার মেট্রিক টন আলু সরকারি চাষিদের থেকে কিনবে ৷ চাষিদের থেকে মাত্র ৪.৬০ টাকায় আলু কেনা হবে ৷ আলু রফতানিতেও চাষিদের বিশেষ সুবিধা ৷ সবাইকে আধার কার্ড দিতে পারেনি কেন্দ্র ৷’

এরপরই বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের উদ্দেশ্যে আরও একবার উড়ে আসে সাবধানবাণী ৷ একইসঙ্গে রাজ্য সরকার প্রদত্ত বিনামূল্যে চিকিৎসা ব্যবস্থার কথাও জানান মুখ্যমন্ত্রী ৷ এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘চিকিৎসা যেন ব্যবসা না হয় ৷ চিকিৎসা সেবার জায়গা ৷ সাধারণের জন্য সব চিকিৎসা পরিষেবা বিনামূল্যে ৷ ইতিমধ্যেই ৩৬টি মাল্টি স্পেশালিটি সুপার হাসপাতাল তৈরি ৷ হাসপাতাল ভাঙচুর করবেন না ৷ অভিযোগ পেলে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেব ৷ আইন নিজেদের হাতে তুলে নেবেন না ৷ হাসপাতাল বন্ধ করতে তো বলিনি কিন্তু গায়ের জোরে টাকা আদায় চলবে না ৷ যার ক্ষমতা আছে তার থেকে নিন ৷ গায়ের জোরে জীবনের ন্যূনতম পুঁজি কাড়বেন না ৷ বাড়ির দলিল জমা রেখে, জোরজুলুম করবেন না ৷ টাকার জন্য চিকিৎসায় অবহেলা করবেন না ৷ আগে টাকা, পরে চিকিৎসা, এটা চলবে না ৷ জীবন মানে দুর্বলকে শেষ করা হয় ৷ জীবন মানে মানুষের পাশে দাঁড়ানো ৷ হার-জিৎ শেষ কথা নয় ৷ সকলে মর্যাদার সঙ্গে লড়াই করব ৷’

First published: 03:39:26 PM Mar 14, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर