পিতৃত্ব নির্ধারণে গর্ভপাতের পর ভ্রূণ সংরক্ষণের নির্দেশ আদালতের

Jan 20, 2017 05:51 PM IST | Updated on: Jan 20, 2017 05:51 PM IST

#কলকাতা: পিতৃত্ব নির্ধারণে ভ্রূণ সংরক্ষণের নির্দেশ হাইকোর্টের। প্রয়োজনে ভ্রুণের ডিএনএ পরীক্ষার কথাও বলেন বিচারপতি। বায়ুসেনায় কর্মরত এক ব্যক্তির সঙ্গে ফেসবুকে আলাপ হয় এক মহিলার। ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের কারণে এখন ১৭ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা ওই মহিলা। বায়ুসেনা কর্মী দায় নিতে অস্বীকার করায় হাইকোর্টে মামলা করেন নির্যাতিতা। সেই মামলাতেই শুক্রবার ভ্রুণ সংরক্ষণের নির্দেশ দেন বিচারপতি।

ফেসবুকের মাধ্যমে বায়ুসেনা কর্মীর সঙ্গে আলাপ হয় এক  মহিলার। স্যোশাল নেটওয়ার্কিং সাইটের হাত ধরেই ক্রমশ বাড়তে থাকে ঘনিষ্ঠতা। যা গড়ায় শারীরিক সম্পর্কে। বর্তমানে ১৭ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা ওই মহিলা। কিন্তু সন্তানের পিতৃত্বের দায় নিতে অস্বীকার করেন বায়ুসেনা কর্মী। এর জেরেই প্রথমে নিম্ন আদালত এবং তারপর কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন ওই মহিলা।

পিতৃত্ব নির্ধারণে গর্ভপাতের পর ভ্রূণ সংরক্ষণের নির্দেশ আদালতের

সেই মামলাতেই শুক্রবার হাইকোর্টে হাজিরা দেন অভিযুক্ত বায়ুসেনাকর্মী। মহিলার সঙ্গে পরিচিতির কথা মানলেও, সন্তানের পিতৃত্বের দায় নিতে অস্বীকার করেন তিনি। এরপরই, নির্যাতিতা মহিলার ভ্রূণ সংরক্ষণের নির্দেশ দেন বিচারপতি দেবাংশু বসাক ৷ পিতৃত্ব প্রমাণের জন্য প্রয়োজনে ডিএনএ পরীক্ষারও কথা বলেন বিচারপতি ৷

 মহিলার বিরুদ্ধে পাল্টা প্রতারণার অভিযোগে সরব বায়ুসেনা কর্মীও। আদালতে তাঁর আইনজীবী বলেন, ফেসবুকে ভুয়ো অ্যাকাউন্ট খুলে আলাপ জমান ওই মহিলা। তারপর তাঁর মক্কেলের ভাল মানুষির সুযোগ নিয়ে আসল পরিচয় গোপন করে প্রতারণা করেন। দু'পক্ষের অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগের উত্তর অবশ্য মিলবে ভ্রূণের ডিএনএ পরীক্ষার পরই।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES