আজ থেকে খুলে গেল জিডি বিড়লা স্কুলের সিনিয়র সেকশন

Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Dec 07, 2017 08:56 AM IST
আজ থেকে খুলে গেল জিডি বিড়লা স্কুলের সিনিয়র সেকশন
GD Birla School
Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Dec 07, 2017 08:56 AM IST

#কলকাতা: আজ থেকে খুলল জি ডি বিড়লা স্কুল ৷ চালু হয়েছে স্কুলের সিনিয়র সেকশন ৷ সকাল ৭টা থেকে একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির ক্লাস চালু হয়েছে ৷ ৯টা থেকে শুরু ষষ্ঠ-দশম শ্রেণির ক্লাস ৷ আগামিকাল, শুক্রবার থেকে খুলবে জুনিয়র সেকশন ৷ স্কুলের বিরুদ্ধে লাগানো পোস্টার ছেঁড়া হয় বুধবার রাতে ৷ পোস্টারগুলি ছিঁড়ে ফেলেন অভিভাবকরা ৷ স্কুলের বাইরে দেওয়ালে লাগানো ছিল ওই পোস্টারগুলি ৷

আপাতত প্রিন্সিপ্যালকে সব দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে ৷ স্কুলের দায়িত্ব সামলাবেন দুই ভাইস প্রিন্সিপ্যাল ৷ কোনও পুরুষ অ্যাটেনডেন্ট রাখা হবে না ৷ অভিভাবকদের দাবি মতো স্কুলে বসানো হবে সিসিটিভি, জিপিএস ৷ অভিভাবক ফোরামকে স্বীকৃতি দিয়েছে স্কুল ৷ ফোরামে সব ক্লাসের প্রতিনিধিরা থাকবেন বলে অভিভাবক ফোরামের পক্ষ থেকে গতকাল জানানো হয়েছে ৷ স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বুধবার অভিভাবক ফোরামের  বৈঠকের পরই এই বিষয়গুলি ঠিক হয় ৷

গত শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছিল টানাপোড়েন। কখনও প্রিন্সিপ্যালের গ্রেফতারের দাবি। কখনও অপসারণের। কখনও আবার জিডি বিড়লা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠকের দাবি করেছিলেন অভিভাবকরা। স্কুল খোলা নিয়ে অভিভাবকদের মধ্যে তৈরি হয় মত বিরোধ। নির্যাতিতার বাবার পাশে দাঁড়ান অভিভাবকদের একাংশ। দফায় দফায় উত্তেজনা। বিক্ষোভ। শেষমেশ বুধবারের বৈঠকে কাটল জট। অভিভাবকদের কয়েকটি দাবি মানা হয়। সমস্ত দায়িত্ব থেকে সরানো হল প্রিন্সিপালকে। বৃহস্পতিবার থেকে খুলছে জিডি বিড়লা।

বৃহস্পতিবার থেকে ঘটনার শুরু। জিডি বিড়লার পড়ুয়া এক শিশুর যৌন নির্যাতনের অভিযোগ ওঠে স্কুলেরই দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে। ঘটনা সামনে আসতেই শুক্রবার সকাল থেকে বুধবার সন্ধে। স্কুলের বিরুদ্ধে প্রথমে কার্যত রণংদেহি অভিভাবকরা। পরে আবার কখনও স্কুলের অচলাবস্থার কথা ভেবে নিজেদের অবস্থান থেকে সরে যান অভিভাবকরা।

শুক্রবার, ১ ডিসেম্বর

-----------------

সকাল থেকে স্কুলের সামনে দফায় দফায় বিক্ষোভ চলে অভিভাবকদের।

- স্কুলের বিরুদ্ধে নিরাপত্তায় গাফিলতির অভিযোগ

- ২০১৪ সালে একইরকম ঘটনার উদাহরণ উঠে আসে

- ছড়ায় বিক্ষোভের আঁচ, আসে যাদবপুর থানার পুলিশ

- শুরু হয় মাইকিং

- প্রিন্সিপালের মন্তব্যে আরও ক্ষোভ ছড়ায়

অভিযুক্ত দুই শিক্ষক গ্রেফতার হলেও নির্যাতিতার বাবা শনিবার সকাল থেকে স্কুল বন্ধ রাখার অনুরোধ জানান। তদন্তে স্কুলে যায় মধ্যশিক্ষা পর্ষদের তিন সদস্যের কমিটি। স্কুলের উত্তরে অসন্তোষ প্রকাশ করে শিশু সুরক্ষা কমিশনও।

শনিবার, ২ ডিসেম্বর

---------------------

-বিচার চেয়ে পরেরদিন স্কুলের বাইরে মিছিল নির্যাতিতার বাবা ও অভিভাবকদের

- ওঠে প্রিন্সিপ্যালের পদত্যাগের দাবি

- ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমে তড়িঘড়ি বসানো হয় সিসিটিভি

- দুই অভিযুক্তকে আদালতে পেশের সময়ও বিক্ষোভ

রবিবার, ৩ ডিসেম্বর

-----------------------

জিডি বিড়লা কর্তৃপক্ষ অনির্দিষ্টকালের জন্য স্কুল বন্ধের বিজ্ঞপ্তি দেয়। ফের স্কুলে প্ল্যাকার্ড, ফেস্টুন হাতে যান নির্যাতিতার বাবা। শুরু হয় অভিভাবক ফোরাম তৈরির প্রস্তুতি। প্রিন্সিপ্যালের গ্রেফতারি-সহ আট দফা দাবিতে রানিকুঠিতে অবস্থান হয়।

সোমবার, ৪ ডিসেম্বর

------------------

পরীক্ষা থাকায় অভিভাবকরা সকালেই হাজির হন জিডি বিড়লায়। অভিভাবকদের মধ্যে তৈরি হয় বিভাজন।

- স্কুল খোলা রেখেই আন্দোলন চালানোর দাবি একদলের

- নির্যাতিতার বাবার পাশে দাঁড়িয়ে আরেকদলে দাবি, বন্ধ থাকুক স্কুল

- স্কুল কর্তৃপক্ষ ও অভিভাবকদের বৈঠকের সম্ভাবনা হয়

সন্ধের মুখে বদলে যায় সিদ্ধান্ত। নির্যাতিতার বাবা জানান, প্রিন্সিপাল গ্রেফতার না হওয়া পর্যন্ত বৈঠকের প্রশ্নই নেই। প্রিন্সিপ্যালকে গ্রেফতারের দাবিতে লালবাজার অভিযানে যান অভিভাবকরা।

মঙ্গলবার , ৫ ডিসেম্বর

------------------------

মঙ্গলবার অভিভাবক ফোরামের একাংশ নির্যাতিতার বাবাকে ছাড়াই যোগ দেন স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠকে। বৈঠকে প্রিন্সিপ্যাল, শিক্ষা দফতর কিংবা ICSE বোর্ডের কোনও সদস্য ছিলেন না।

- স্কুলের আধিকারিক, শিশু সুরক্ষা কমিশনের চেয়ারপার্সন ও পুলিশের সঙ্গে বৈঠক অভিভাবকদের ৭ প্রতিনিধির

- ৩ ঘণ্টার বৈঠকে প্রথম থেকেই প্রিন্সিপালের গ্রেফতারি ও বরখাস্তের দাবি

- চলে রীতিমত দর কষাকষি

- বুধবার বিকেল পাঁচটায় ফের বৈঠকের ডাক

- লালবাজারে দীর্ঘক্ষণ জেরা করা হয় প্রিন্সিপাল শর্মিলা নাথকে

বুধবার, ৬ ডিসেম্বর

--------------------------

বিকেল পাঁচটায় শুরু হয় বৈঠক।

- ম্যারাথন বৈঠকের সময় বাইরে দফায় দফায় উত্তেজনা

- অভিভাবকদের একদল স্কুল খোলার দাবিতে অনড়

- প্রিন্সিপ্যালের অপসারণের দাবি আরেকদলের

- সাড়ে ৩ ঘণ্টার বৈঠকে অভিভাবকদের দাবি মেনে নেয় কর্তৃপক্ষ।

সিদ্ধান্ত হয় বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই খুলে যাচ্ছে জিডি বিড়লা। প্রিন্সিপ্যাল শর্মিলা নাথকে সমস্ত দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। বিক্ষোভের হুংকার বদলে যায় অভিভাবকদের আনন্দোচ্ছ্বাসে।

First published: 08:52:51 AM Dec 07, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर