খাগড়াগড় কাণ্ডে বড় সাফল্য, গ্রেফতার মোস্ট ওয়ান্টেড বুরহান

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Sep 15, 2017 09:19 AM IST
খাগড়াগড় কাণ্ডে বড় সাফল্য, গ্রেফতার মোস্ট ওয়ান্টেড বুরহান
নিজস্ব চিত্র
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Sep 15, 2017 09:19 AM IST

#কলকাতা: খাগড়াগড় কাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত বুরহান শেখ পুলিশের জালে। মধ্য কলকাতার মুচিপাড়া থানার বিবি গাঙ্গুলি স্ট্রিট থেকে মোস্ট ওয়ান্টেড জামাত জঙ্গিকে গ্রেফতার করে এসটিএফ। খাগড়াগড়ে কাণ্ডে জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ ও নতুন সদস্য জোগাড়ের দায়িত্বে ছিল বুরহান। রাতেই লালবাজারে জেরা টানা জেরা করা হয় তাকে। আজ তাকে এনআইএর হাতে তুলে দেওয়ার সম্ভাবনা।

তিন-বছর আগে খাগড়াগড় বিস্ফোরণ কাঁপিয়ে দিয়েছিল গোটা রাজ্যকে। সেই খাগড়াগড় কাণ্ডের অন্যতম মূল চক্রী বুরহান শেখ এখন পুলিশের হাতে। মধ্য কলকাতার মুচিপাড়া থানার বিবি গাঙ্গুলি স্ট্রিট থেকে ধরা পড়ল কট্টর এই জঙ্গি। এসটিএফের অভিযানে জালে পড়ল বুরহান।

জামাত-এ-মুজাহিদিন বাংলাদেশের সক্রিয় সদস্য বুরহান শেখ। শিমুলিয়ার বাসিন্দা বুরহান মাদ্রাজায় প্রশিক্ষকের কাজ করত। আড়ালে চলত পড়ুয়াদের অস্ত্র প্রশিক্ষণ ও মগজ ধোলাইয়ের কাজ। একাধিক জামাত নেতার সঙ্গেও ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রেখে চলত বুরহান। গত ৩ বছরে বহু চেষ্টাতেও বুরহানের খোঁজ মেলেনি।

ভারত ও বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী গ্রামে আশ্রয়

পরের ২ বছর মুর্শিদাবাদে আত্মগোপন করে ছিল

আজ লালগোলা প্যাসেঞ্জারে শিয়ালদহ আসে

সেখানে ঘোরাঘুরির পর বিবি গাঙ্গুলি স্ট্রিটে এলে গ্রেফতার

দাড়ি কেটে, চেহারা বদলে পুলিশকে ধোঁকা দেওয়ার চেষ্টা কাজে আসেনি। তাঁর কাছ থেকে মিলেছে টাকা ও বেশ কিছু নথি। বুরহানকে জেরা করে বেশ কয়েকটি প্রশ্নের উত্তর খুঁজছে পুলিশ

জামাতের সঙ্গে কীভাবে ও কতটা যোগাযোগ বুরহানের?

দেশ ও রাজ্যে কীভাবে নেটওয়ার্ক ছড়িয়েছে জামাত?

অন্যান্য কট্টরপন্থী সংগঠনের সঙ্গে কতটা যোগাযোগ?

কীভাবে জোগাড় হয় সংগঠনের অস্ত্র ও বিস্ফোরণ

বুরহানকে গ্রেফতার করে আবারও সফল কলকাতা পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স। তার জন্য ৩ লক্ষ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছিল এনআইএ। এনআইএ-র চার্জশিটে তাকে ফেরার দেখানো হয়। আদালতের নির্দেশ পেলে জামাত জঙ্গিকে এনআইএ-র হাতেই তুলে দেওয়া হতে পারে।

First published: 09:06:55 AM Sep 15, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर