বঙ্গোপসাগরে বিশাল নৌবহর পাঠাল ভারতীয় নৌসেনা

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jul 08, 2017 12:07 PM IST
বঙ্গোপসাগরে বিশাল নৌবহর পাঠাল ভারতীয় নৌসেনা
Photo : AFP
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jul 08, 2017 12:07 PM IST

#নয়াদিল্লি: বেশ কয়েকদিন ধরেই ভারত ও চিনের মধ্যে টানাপোড়েন অব্যাহত ৷ ভারত, ভুটান ও চিনের মধ্যবর্তী সীমান্তে ডোকা লা এলাকায় ঢুকে পড়েছে চিনা আর্মি ৷ জানা গিয়েছে, সেখানে রাস্তার তৈরির কাজও শুরু করে দিয়েছে চিন ৷ সেই কাজে দিল্লি ও থিম্পু বাধা দিতেই সমস্যার সূত্রপাত ৷ এরপর থেকেই দু’দেশের মধ্যে উত্তেজনা চলছে ৷ দুই দেশের তরফেই ওই এলাকায় উল্লেখযোগ্যভাবে সেনা মোতায়ন বাড়িয়েছে ৷ মুখোমুখি প্রায় তিন হাজার ভারতীয় ও চিনা সেনা। যে কোনও মুবূর্তে দু’দেশের মধ্যে শুরু হতে পারে যুদ্ধ ৷ এরকম পরিস্থিতি চিনকে চাপে রাখতে বঙ্গোপসাগরে বিশাল নৌবহর পাঠিয়েছে ভারতীয় নৌসেনা।

১০ তারিখ থেকে ভারত মহাসাগরে শুরু হতে চলেছে ‘মালাবার এক্সারসাইজ’। ভারতের পাশাপাশি আমেরিকা ও জাপানের নৌসেনা যৌথভাবে মহড়ায় নামতে চলেছে ৷ এই মহড়ায় ভারত এখনও পর্যন্ত সব থেকে বড় নৌবহর পাঠাচ্ছে বলে খবর।

এই বিষয়ে চিনের তরফে জানানো হয়েছে, মালাবার মহড়ার নিশানা কোনও ‘তৃতীয় পক্ষ’ নয় বলেই আশা করা হচ্ছে ৷ এশিয়া মহাদেশের দেশগুলির নিরাপত্তা ও শান্তির কথা মাথায় রাখা হবে বলেও আশা করা হচ্ছে ৷

১৯৯২ সালে আমেরিকার সঙ্গে মালাবার মহড়া শুরু হয় ৷ এরপর ২০১৪ থেকে জাপান প্রতিবাছর তাতে অংশগ্রহণ করে ৷ ২০১৩ সাল থেকে ছ’জি সাবমেরিন ভারত মহাসাগরে পাঠিয়েছে চিন ৷ ডোকা লা এলাকায় রাস্তা তৈরিতে বাধা দিতেই চিনের সঙ্গে চাপানউতোর শুরু হয় ভারতের ৷ এই নিয়ে ভুটানের সঙ্গেও মতবিরোধ চলছে চিনের ৷ কিন্তু কেউ পিছু হঠতে রাজি নয় ৷ সিকিম নিয়ে গত কয়েকদিনে দু’দেশের সম্পর্ক তলানিতে এসে পৌঁছেছে ৷

ভারত জানিয়েছে ডোকালাম ভুটানের ৷ চুক্তি অনুযায়ী ভুটানকে সামরিক ও কূটনৈতিক সমর্থন দেওয়ার কথা ভারতের ৷ তাই সেনা প্রত্যাহার করার কোনও প্রশ্নই নেই ৷

অন্যদিকে চিনের অভিযোগ, ভারত পাঁচশিল চুক্তি লঙ্ঘন করেছে। সেনা সরিয়ে ভারত এই ভুল ঠিক করে নিক বলেও জানিয়েছে তারা। এরই উত্তরে ভারত তাদের অবস্থান স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে ৷

First published: 12:07:02 PM Jul 08, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर