GST চালুতে লোকসভায় শুরু চূড়ান্ত পর্বের বিতর্ক

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Mar 29, 2017 08:05 PM IST
GST চালুতে লোকসভায় শুরু চূড়ান্ত পর্বের বিতর্ক
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Mar 29, 2017 08:05 PM IST

#নয়াদিল্লি: ঐতিহাসিক করব্যবস্থার পথে চূড়ান্ত দৌড় শুরু। জিএসটি রূপায়ণে লোকসভায় শুরু হল চূড়ান্ত পর্বের বিতর্ক। জিএসটি রূপায়নে লোকসভায় চারটি বিল পেশ করেছিল কেন্দ্র। এই বিলগুলি নিয়েই চলল দীর্ঘ আলোচনা। চারটি বিলের বেশ কিছু প্রস্তাবে আপত্তি উঠল। পেশ হল একাধিক সংশোধনী। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীও স্বীকার করলেন, যেভাবে নতুন কর ব্যবস্থার দিকে এগোনো হচ্ছে তা সবার কাছেই এক নতুন অভিজ্ঞতা।

অভিন্ন করব্যবস্থার পথে ভারত। সেই লক্ষ্যেই চারটি আলাদা বিল পেশ হয়েছে সংসদে। কেন্দ্রের পেশ করা বিলগুলি নিয়ে এখনও বহু প্রশ্ন। বহু বিভ্রান্তি। সবকিছুর জবাব দেওয়ার চেষ্টা চালালেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। চারটি বিলের বেশ কিছু প্রস্তাবে আপত্তি উঠল। পেশ হল একাধিক সংশোধনী। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীও স্বীকার করলেন, যেভাবে নতুন কর ব্যবস্থার দিকে এগোনো হচ্ছে তা সবার কাছেই এক নতুন অভিজ্ঞতা।

অর্থমন্ত্রী নিজেই মানছেন, জিএসটি নিয়ে সব প্রশ্নের উত্তর তাঁর কাছেও নেই। অভিন্ন করব্যবস্থা চালুর পর কর সংগ্রহের পদ্ধতি নিয়েও জটিলতার আশঙ্কা থাকছে। কংগ্রেস সহ অন্য বিরোধী দল জিএসটি’তে অস্বচ্ছতার অভিযোগেও সরব। তাদের দাবি, এতে কেন্দ্র-রাজ্য টানাপোড়েন বাড়বে। নষ্ট হবে যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো। ইউপিএ জমানায় বিজেপির অসহযোগিতাতেই চালু হয়নি জিএসটি। এর জন্য ১২ লক্ষ কোটি টাকা ক্ষতির মুখে পড়তে হয় কেন্দ্রকে। ফিরে এল সেই প্রসঙ্গও।

সবকিছু ঠিক থাকলে ১ জুলাই তিনটি ক্ষেত্রে চালু হবে জিএসটি।

জমি ও বাড়ি

গাড়ি

ঋণ ও সোনা

আর এই ক্ষেত্রগুলিতে জিএসটি ধার্য হওয়ার ফলে সাধারণ মানুষের ওপরই চাপ বাড়ার সম্ভাবনা।

জমি বা বাড়ির লিজ, ভাড়া এমনকী বাড়ির ঋণেও ধার্য হবে জিএসটি

জমি কেনা বা বিক্রিতে অবশ্য এখনই জিএসটি নয়

এই দুই ক্ষেত্রে স্ট্যাম্প ডিউটিই ধার্য হবে

জল, বিদ্যুতও জিএসটির বাইরে থাকছে

গাড়ি উৎপাদন ও বিক্রিতে চাপছে জিএসটি

অনিশ্চয়তাকে সঙ্গী করেই পথচলা শুরু করছে জিএসটি।

বহু বিতর্কের পর অবশেষে সোমবার অর্থবিলের আকারে লোকসভায় পেশ হল জিএসটি। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি লোকসভায় বিলটি পেশ করেন।

গত সপ্তাহেই প্রস্তাবিত জিএসটি বিলের তিনটি সংশোধনীতে ছাড়পত্র দেয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। জুলাই মাস থেকেই দেশে জিএসটি চালু করার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদি সরকার। জিএসটি বিলটি লোকসভায় পেশের সময় তুমুল বিরোধিতা করে তৃণমূল কংগ্রেস, কংগ্রেস-সহ বিরোধীরা।

কী কী বিল পেশ হল - 

-কেন্দ্রীয় পণ্য ও পরিষেবা কর বিল, ২০১৭

-কেন্দ্রীয় সংযুক্ত পণ্য ও পরিষেবা কর বিল, ২০১৭

-কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ও পণ্য পরিষেবা কর বিল, ২০১৭

-পণ্য ও পরিষেবা কর বিল (সংযোজিত) রাজ্যের জন্য ক্ষতিপূরণ সংক্রান্ত, ২০১৭

কিভাবে জিএসটি 

-কেন্দ্র ও রাজ্যের প্রতিনিধিদের নিয়ে গঠিত কমিটি জিএসটির হার নির্ধারণ করবে

-সিজিএসটি, এসজিএসটি ও আইজিএসটি অনুযায়ী করের হার নির্ধারণ হবে

-সিজিএসটি, এসজিএসটির হার ২০ শতাংশ ও আইজিএসটিসির হার ৪০ শতাংশের মধ্যে থাকবে

-রাজ্যগুলির ক্ষতি সামলাতে কিছু পণ্য ও পরিষেবায় সেস বসানো হবে

-যে সব ব্যবসার টার্নওভার ৫০ লক্ষ বা তার কম, সেগুলিতে বছরে মোট লেনদেনের ওপর অভিন্ন কর বসানোর প্রস্তাব

জিএসটি কার্যকরে

-বিলে প্রায় ২৪৭টি ধারা রয়েছে

-সবকটি ধারা পাস করাতে আলাদা আলাদা ভোটাভুটির প্রয়োজন

-একাধিক সংশোধনী নিয়েও ভোটাভুটি

-কমপক্ষে ৪০ টি সংশোধনী অনুমোদন করা হতে পারে

-মূল চারটি জিএসটি বিল অর্থবিল হিসাবে পেশ করা হয়েছে

-ফলে লোকসভায় পাস করলেই যথেষ্ট, রাজ্যসভার অনুমোদনের প্রয়োজন নেই

-তবে বৃহস্পতি ও শুক্রবার বিল নিয়ে রাজ্যসভায় আলোচনা

GST

জমি বা বাড়ির লিজ, ভাড়া এমনকী বাড়ির ঋণেও ধার্য হবে জিএসটি

জমি কেনা বা বিক্রিতে অবশ্য এখনই জিএসটি নয়

এই দুই ক্ষেত্রে স্ট্যাম্প ডিউটিই ধার্য হবে

জল, বিদ্যুতও জিএসটির বাইরে থাকছে

গাড়ি উৎপাদন ও বিক্রিতে চাপছে জিএসটি

যদিও কংগ্রেস সহ অন্য বিরোধী দল জিএসটি’তে অস্বচ্ছতার অভিযোগে সরব। তাদের দাবি, এতে কেন্দ্র-রাজ্য টানাপোড়েন বাড়বে। নষ্ট হবে যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো।

First published: 07:58:00 PM Mar 29, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर