নতুন বিয়ে করেছেন? এ খাবার গুলো ভুলেও খাবেন না !

Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Dec 04, 2017 04:22 PM IST
নতুন বিয়ে করেছেন? এ খাবার গুলো ভুলেও খাবেন না !
Photo : AFP
Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Dec 04, 2017 04:22 PM IST

#কলকাতা: একের পর এক বিয়ে হচ্ছে ৷ কারও প্রেম বিবাহ তো কারও বাবা-মায়ের দেখা পাত্র-পাত্রীর ৷ জমিয়ে বিয়ের আসর, তারপর দারুণ হানিমুন প্ল্যান ৷ তবে হানিমুনে গিয়ে যদি বুঝতে পারেন যৌন মিলনে আপনার আগ্রহটা শুধুই এতদিন ছিল মুখেই মারিতং জগত ৷ বাস্তবে এসে একেবারে সব ফক্কা ! তাহলে? আসলে আপনি যা খাচ্ছেন তা আপনার যৌন ইচ্ছায় ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে। বয়স্কদের ক্ষেত্রে ক্ষতির আশঙ্কা বেশি। সাধারণত ‘টেস্টোস্টেরন’ হরমোনের পরিমাণ কমলে যৌন ইচ্ছা কমে যায়। যৌন ইচ্ছা স্বাভাবিক রাখতে এই ৫টি খাবারের ব্যাপারে সতর্ক থাকুন:

১) অতিরিক্ত সয়া খেলে পুরুষদের স্তনের আকার বেড়ে যায়। সয়া থেকে যেসব খাবার তৈরি হয়, যেমন সয়া মিল্ক বা সয়া সস এগুলি টেস্টোস্টেরোনের মাত্রা অনেক কমিয়ে দেয়। ফলে যৌন আকাঙ্ক্ষা কমে যায়। ইউরোপিয়ান জার্নাল অব ক্লিনিক্যাল নিউট্রিশন থেকে এ তথ্য জানা গিয়েছে ৷

গবেষকরা দেখেছেন, যারা দিনে ১২০ গ্রাম সয়া খায় তাদের শরীরে টেস্টোস্টেরোন কমে যায়। আর যেসব পুরুষ সন্তান জন্মদানের কথা ভাবছেন তারা খাদ্য তালিকা থেকে সয়া একদম বাদ দিয়ে দিন। সয়া শুক্রাণুর পরিমাণও কমিয়ে দেয়।

২) যে কোনো ধরনের রিফাইন কার্বোহাইড্রেট বা শর্করা ছেলেদের যৌনকর্মে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে। রিফাইন শর্করা সবচেয়ে বেশি থাকে ক্র্যাকার্সে। অতিরিক্ত রিফাইন শর্করা টেস্টোস্টেরোনের মাত্রা কমিয়ে দেয়।

তাছাড়া রিফাইন শর্করায় যে চিনি থাকে তা ওজনও বাড়ায়। এই চিনিও টেস্টোস্টেরোনের মাত্রা কমিয়ে দেয়। বিপরীত ভাবে শরীরে এস্ট্রোজেনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। তাই যৌনকর্মের স্বাভাবিকতা বজায় রাখতে পরিমিত ক্র্যাকার্স খান।

৩) অতিরিক্ত মদ খেলে তার পরিণাম সাংঘাতিক। যৌন জীবনে মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে অতিরিক্ত অ্যালকোহল। লিঙ্গ উত্থানের সমস্যা সহ, ঠিকভাবে অর্গাজম না হওয়া এবং মিলনের শুরুতেই দ্রুত বীর্যপাতের কারণ হতে পারে অতিরিক্ত মদ পান। তাছাড়া অ্যালকোহল ও ভারি খাবার সবসময় তন্দ্রাচ্ছন্ন করে রাখে, যার পরিণামে সেক্সের উৎসাহ কমে যায়।

৪) যেসব খাবারে অতিরিক্ত হরমোন বা অ্যান্টিবায়োটিক আছে সেগুলি পরিহার করা উচিৎ। যেমন কিছু রেড মিটে প্রচুর হরমোন আছে। ফলে বেশি রেড মিট খেলে আপনার শরীরের প্রাকৃতিক হরমোনে ভারসাম্যহীনতা তৈরি হবে।

রেড মিট নিয়ন্ত্রিত মাত্রায় খেলে তা বরং উপকারেই লাগে। রেড মিট জিঙ্ক এবং প্রোটিনের অন্যতম উৎস। প্রোটিন এবং জিঙ্ক উভয়ই ফ্যাট কমায় এবং পেশী গঠন করে। জিঙ্ক শুক্রাণুর সংখ্যা বৃদ্ধি করে এবং লিবিডো বা যৌন-ইচ্ছা বাড়ায়।

৫) বেশি খাবার খেলে খুব স্বাভাবিকভাবেই আপনার ওজন বেড়ে যাবে। আর ওজন বেড়ে গেলে যৌনতার ইচ্ছা কমে যায়। যেকোনো ধরনের খাবার অতিরিক্ত খাওয়াই যৌন আকাঙ্ক্ষার বড় শত্রু।

৬) খাওয়া দাওয়ার ওপরে মানুষের বয়স নির্ভর করে। যাদের ওজন বেশি, ৩৫ থেকে ৬০ বছরে তাদের বয়স দ্রুত বেড়ে যায়। শরীরে সময়ের আগেই বার্ধক্য আসে। বিশেষত যারা অতিরিক্ত চাপে থাকেন, অনিয়মিত ও অনিয়ন্ত্রিত খাবার খান, ব্যায়াম করেন না তাদের ক্ষেত্রে এই ব্যাপারটা বেশি ঘটে।

ভালো ডায়েটের অর্থ ভালো সেক্স। যার ডায়েট সিস্টেম যত উন্নত সে যৌনতায়ও ততই সুখী।

কিছু নির্দিষ্ট খাদ্যের কারণে ঘাম, মূত্র, বীর্য নিঃসরণে সমস্যা তৈরি হয়। অ্যাসপারাগাস, রসুন ও কোনো কোনো গন্ধ উৎপাদক মসলা ও দুগ্ধজাত সামগ্রী নিঃসৃত পদার্থে অস্বস্তিকর গন্ধ ও স্বাদ নিয়ে আসে।

আনারস, ভ্যানিলা ফ্লেভার দেওয়া খাদ্যদ্রব্য আবার নারী ও পুরুষ উভয়ের মধ্যে পারস্পরিক আকর্ষণ বৃদ্ধি করে।

First published: 04:22:47 PM Dec 04, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर