গোয়ার মাঠে জ্বলল লাল-হলুদ মশাল, ইস্টবেঙ্গলকে টানছেন ভারতীয়রাই

Jan 18, 2017 07:11 PM IST | Updated on: Jan 18, 2017 07:29 PM IST

চার্চিল ব্রাদার্স: ০

ইস্টবঙ্গল: ২

গোয়ার মাঠে জ্বলল লাল-হলুদ মশাল, ইস্টবেঙ্গলকে টানছেন ভারতীয়রাই

Photo Courtesy : East Bengal

#মারগাও: রাখে হরি মারে কে। কলকাতা লিগ না কী মিলেছিল মর্গ্যানের কপাল জোরে। আই লিগেও কি সেই মর্গ্যানের স্টার ফ্যাক্টর ? তবু শেষ ভাল যার, সব ভাল তার। চার্চিলকে ২-০ গোলে হারাল ইস্টবেঙ্গল

গোয়ার মাঠে জয়ের ধারা অব্যাহত রইল লাল-হলুদের। পুণের পর এবার চার্চিল। তবে এই চার্চিল আর আগের চার্চিলে পেলে আর আবেদি পেলের পার্থক্য। গোয়ান দলে একমাত্র স্ট্রাইকার ত্রিনিদাদ টোবাগোর অ্যান্টনি উলফ। স্বদেশীর কাছে চার্চিলের ভাঙা সংসারের কথা শুনেই কি না কে জানে, ভাস্কোর মাঠে গুটিয়েই রইলেন উইলস প্লাজা। বিদেশি শূন্য চার্চিল ডিফেন্স ভাঙার চেষ্টাই করলেন না। ওয়েডসন আবার বল ধরলে বল ছাড়েন না। ভাবখানা এমন হাইতি থেকে কুড়িয়ে এনেছেন। কাউকে দেবেন না। পরিবর্ত নেমে কিরঘিস্থানের আমিরভ অল্প সল্প ওয়ার্ম আপ ছাড়া কিছুই করেননি। কোন যুক্তিতে ঠান্ডার দেশের আমিরভকে এই দেশে ধরে আনলেন, তা জানতে দমদম হনুমান মন্দিরে লাল-হলুদের মামা-ভাগ্নের কাছে হত্যে দিতে হয়। এখনই এই। এপ্রিল-মে মাসে আমিরভ কী করবেন ঈশ্বরই জানেন।

ভারতীয় রিক্রুটমেন্টটা ভাগ্যিস ভাল হয়েছিল। ইস্টবেঙ্গলকে ম্যাচের পর ম্যাচ উতরে দিচ্ছেন তো সেই হাওকিপ, ডিকা, মেহতাবরাই। সাহেব কোচ সেখানে বাড়বাড়ি করলে আই লিগ এবারও স্বপ্ন হয়েই ঝুলে থাকবে। গোয়ার মাঠে ১৮ জনে নেই রোমিও। দলে ডেভিডের মতো ফাইনাল পাসার নেই দেখেও জায়গা পান না ডেভিড। নিখিল পূজারি ‘কোচেস চয়েজ’ হয়ে পরের পর ম্যাচে প্রথম এগারোয়। আর রুইদাস রিজার্ভে। হাওকিপের গোল টা ভাগ্যক্রমে হয়ে না থাকলে আইজল ম্যাচের পরিণতি নিয়েই মাঠ ছাড়তে হত এদিনও। ডিকার গোলে রেফারি চোখ বন্ধ করে নিয়েছি্লেন। নাহলে ছয় গজের বক্সে বুকেনিয়া গোলরক্ষককে ঠেলে দিলে গোল হয় কি করে। যদিও রেকর্ডবুকে লেখা থাকবে ইস্টবেঙ্গল ২। চার্চিল ০।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES