Death In The Gunj Movie Review: অলস দুপুরে পড়া একটা ভালো নভেলের মতো

Jun 04, 2017 07:09 PM IST | Updated on: Jun 05, 2017 09:17 AM IST

#কলকাতা: অনেকটা ডায়েরি লেখার মতো ৷ তবে এখানে, দিন শেষে গোটা দিনের বিবরণ নয়, বরং প্রতি মুহূর্তটাকেই সুযোগ করে পাতায় তুলে ধরা ৷ প্রত্যেক ঘটনার পাশে লিখে রাখা, সঠিক সময়, আবহ ! আর এই সব লেখার মাঝে যে থমথমে ভাবটা পরে থাকে, প্রতিটা শব্দের মধ্যে যে না বলা কথা, সংযোগ, কৌতুহল লুকিয়ে থাকে, তাকেই যেন পর্দায় টেনে এনেছেন কঙ্কনা সেনশর্মা ! তাই ওপর থেকে দেখলে, ‘আ ডেথ ইন দ্য গঞ্জ’ ছবি ঠিক যেন দিনলিপি, ঘটনাক্রম ! কিন্তু ভিতরে চাপা, একটা থমথমে ভাব !

‘আ ডেথ ইন দ্য গঞ্জ’ ছবির শুরুতেই একটা প্রশ্ন রেখে যায় ৷ আর যে প্রশ্নের উত্তর, ছবির একেবারে শেষে পাওয়া গেলেও, গোটা ছবিতেই ছোট্ট ছোট্ট করে বলে দেওয়া ৷ এখানেই পরিচালকের মুন্সিয়ানা ৷ পটু হাতের চিত্রনাট্য ৷

Death In The Gunj Movie Review: অলস দুপুরে পড়া একটা ভালো নভেলের মতো

কঙ্কনা এই ছবিতে কোলাহল রয়েছে ৷ একটু বেশি চিলচিৎকার রয়েছে ৷ সাই সাই করে চোখের সামনে দিয়ে বেরিয়ে যাওয়া দৃশ্য রয়েছে ৷ সঙ্গে দুম করে ঢিল দিয়ে শুধুই দৃশ্য থেকে আরেক দৃশ্য ভাসিয়ে দেওয়া ৷ ঠিক যেন চরিত্র থেকে চরিত্রে যাওয়া সেতু ৷ যা কিনা হালকা করে বাঁধা !

ছবির প্রেক্ষাপট ম্যাকলাক্সিগঞ্জ ৷ মনে পড়ায় বুদ্ধদেব গুহ-র উপন্যাসের পটভূমিকার ৷ কিছুটা আবার অরণ্যের দিনরাত্রি ! তবে শুধুই মাত্র লোকেশনের জন্যই এই দুটো বিষয় মনে পড়তে বাধ্য কঙ্কনার এই ছবি থেকে ৷ কারণ, আ ডেথ ইন দ্য গঞ্জ একেবারেই এই দুই বিষয়কে নিয়ে নয় ৷ বরং সে আপন খেয়ালে, খরস্রোতা নদীর মত বয়ে চলে। কিছু মুখ, কিছু মুহূর্ত,আর পড়ে থাকে অপার মুগ্ধতা! ঠিক যেন শান্ত দুপুরে শুকনো পাতার মতো নিরুদ্দেশ হয়ে ঘুরে বেড়ানো ৷ আবার হঠাৎ করে তীব্র বেগে ঝড় বয়ে আসা ৷ কঙ্কনা এই ছবিতে এরকমই একটা আভাস বা উপলদ্ধি !

অনেক গুলো চরিত্র ৷ যাদের মধ্যে সম্পর্ক গুলো কোনওটা স্পষ্ট, বেশিরভাগই অস্পষ্ট ! যার মধ্যে সত্তু (বিক্রান্ত )চরিত্রই এই ছবির মূল আত্মা ! এছাড়াও রয়েছে কল্কি কোয়েচলিন, তিলোত্তমা সোম, রণবীর সোরে, গুলশন দেবাইয়া, ওম পুরি, তনুজা ৷ কিন্তু গোটা গল্পের ক্রাইসিস শুরু সত্তু চরিত্রের মানসিক, দৈহিক বোঝাবুঝি ও তার আবর্তে অন্য চরিত্রের ‘রিয়্যাকশন’ থেকেই ৷ এ যেন প্রমাণ করা খেলা চিত্রনাট্য ঘিরে ৷

ছবি শুরু হয় এক অ্যাম্বাসেডর, একটা ‘ডেথ বডি’ ও ম্যাকলাক্সিগঞ্জের জঙ্গল থেকে ! এখানে ‘ডেথ বডি’টিই ছবির মধ্যে সবচেয়ে জীবন্ত হয়ে ওঠে ! একটা ‘অসম্পূর্ণতা’ ছবিটাকে সম্পুর্ণতার দিকে এগিয়ে নিয়ে যায় ৷ গোটা ছবি জুড়ে থ্রিলারের আবহ ! অনেকটাই সাইকোলজিক্যাল ৷

প্রথম ছবি হিসেবে কঙ্কনা যে গুছিয়ে ছবিটা তৈরি করেছেন তা স্পষ্ট ৷ কঙ্কনার নিজের বুদ্ধিদীপ্ত অভিনয়ের ছাপও রয়েছে তাঁর পরিচালনায় ৷ শীর্ষ রায়ের সিনেম্যাটোগ্রাফি অনেকাংশেই এই গোছানো চিত্রনাট্যেকে সঙ্গ দিয়েছে ৷ তবে ছবিতে অহেতুক কিছু দৃশ্য রয়েছে, যা এডিটিং টেবিলে বাদ পড়লে ভালোই হত ৷ শেষমেশ বলা যায়, কঙ্গনার ‘আ ডেথ ইন দ্য গঞ্জ’ অনেকটা অলস দুপুরে পড়া নভেলের মতো ! যার গতি ঢিলে হলেও ক্ষতি নেই, বরং বিকেল হওয়া অবধি রোমাঞ্চ থেকেই যায় !

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES