ভেজ বিরিয়ানিতে টিকটিকি ! অসুস্থ যাত্রী

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jul 26, 2017 01:44 PM IST
ভেজ বিরিয়ানিতে টিকটিকি ! অসুস্থ যাত্রী
Photo : AFP
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jul 26, 2017 01:44 PM IST

#কলকাতা: ভেজ বিরিয়ানি রইল না ভেজ! সৌজন্যে ভারতীয় রেল ৷ পূর্বা এক্সপ্রেসে ভেজ বিরিয়ানিতে টিকটিকি ৷ এই ট্রেনে খাবারের দায়িত্বে রেল নিযুক্ত ঠিকাদারি সংস্থা ৷ অভিযুক্ত সংস্থাকে সরাতে চলেছে রেল ৷ রিপোর্ট জমা দিচ্ছেন দানাপুরের DRM ৷

কয়েকদিন আগেই ক্যাগের রিপোর্টে চাঞ্চল্য ছড়ায় ৷ রেলে যে খাবার যাত্রীদের দেওয়া হয় তা খাবারের যোগ্য নয় ৷ এমটাই জানানো হয় CAG-এর রিপোর্টে ৷ এরপর খাবার নিয়ে নড়েচড়ে বসে রেল ৷ কিন্তু তাতে যে খুব একটা বদল হয়নি তা এই ঘটনা থেকেই পরিষ্কার ৷ এদিন পূর্বা এক্সপ্রেসের খাবারে মিলল মরা টিকটিকি ৷

তীর্থযাত্রীদের একটি দল ঝাড়খণ্ড থেকে উত্তরপ্রদেশ যাচ্ছিলেন ৷ পটনা স্টেশনের কাছে ভেজ বিরিয়ানি অডার্র দেওয়া হয় ৷ খেতে গিয়ে দেখেন বিরিয়ানিতে রয়েছে মরা টিকটিকি ৷ প্রথমে প্যাকেট খুললে টিকটিকি চোখে পড়েনি ৷ সেই খাবার থেকে এক ব্যক্তি অল্প একটু খাবার খেয়েছে ৷ এরপর সেই অসুস্থ হয়ে পড়ে ৷

রেলের স্টাফকে এই বিষয়ে জানানো হলে তারা খাবারটি জানলা দিয়ে বাইরে ফেলে দেয় ৷ এরপর টিটিই বা প্যান্ট্রিতে অভিযোগ জানালেও তারা বিষয়টিতে গুরুত্ব না দেওয়ায় অবশেষে রেলমন্ত্রী সুরেশ প্রভুকে ট্যুইট করে ক্ষোভ প্রকাশ করে যাত্রীরা ৷

তাতেই তৎক্ষণাৎ কাজ হয়। মুঘলসরাই স্টেশনে ট্রেন পৌঁছতেই শীর্ষ আধিকারিকরা ট্রেনে এসে অসুস্থ ব্যক্তিকে ওষুধ দিয়ে যান ৷

রেলের আধিকারিক কিশোর কুমার জানান জানিয়েছেন, ওই ব্যক্তির স্বাস্থ্য নিয়ে আমরা চিন্তিত ছিলাম ৷ ট্রেন স্টেশনে পৌছনোর আগেই চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ওষুধের ব্যবস্থা করে রাখা হয়েছিল ৷ ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে ৷ এই নিয়ে রেল মন্ত্রকের কাছে রিপোর্ট পেশ করা হবে ৷

সম্প্রতি রেল ও CAG-র জয়েন্ট টিম ৭৪টি স্টেশন ও ৮০টি ট্রেনে পরিদর্শন করেছে ৷ সেই সময় দেখা গিয়েছে, খাবার বানানো ও পরিবেশন করার সময় পরিষ্কার পরিছন্নতার দিকে একদম নজর দেওয়া হয় না ৷ খাবার বানানোর জন্য দূষিত জল ব্যবহার করা হয়ে থাকে ৷ ডাস্টবিন ও কাবার্ড পরিষ্কার রাখা হয় না ৷ মাকড়সা, আরশোলা, বিভিন্ন রকমের পোকা মাকড় থেকে খাবার সুরক্ষিত রাখারও কোনও ব্যবস্থআ নেওয়া হয় না ৷ এর জেরে যাত্রীদের অসুস্থ হয়ে পড়ার সম্ভাবনা থাকে ৷

First published: 01:44:20 PM Jul 26, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर