পুলিশের জালে দিল্লির ‘Serial Kisser’ ! ধরা পড়ে কী বলল সে ?

Jan 07, 2017 07:58 PM IST | Updated on: Jan 07, 2017 08:05 PM IST

#নয়াদিল্লি: রাস্তায় মহিলাদের দেখলেই চুমু। ‘কিস কিসসা’র সেই ছবি ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড। দিল্লির কনট প্লেসের এই ঘটনা প্রায় সপ্তাহ দু’য়েক আগের। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় এর মধ্যেই যথেষ্ট আলোড়ন ফেলা এই ভিডিও নিয়ে দিল্লি পুলিশ নড়ে চড়ে বসেছে। ওই কিশোরের বিরুদ্ধে শ্লীলতহানির অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর তদন্ত শুরু হয়। প্রশ্ন ওঠে, দিন দুপুরে রাস্তায় এই ঘটনা নিছকই মজা ? নাকি প্ল্যানমাফিক শ্লীলতাহানির চেষ্টা। পুলিশের জালে ধরা পড়তে অবশ্য বিশেষ সময় নেয়নি ‘ক্রেজি’ সুমিত ৷ পুরো নাম সুমিত ভার্মা ৷ ধরা পড়ে পত্রপাট ক্ষমাও চেয়ে নিয়েছে সে ৷ সুমিত জানায়, ‘‘ আমি কাউকে আঘাত করতে চাইনি ৷ মেয়েদের আমি সম্মান করি ৷’’

ক্রেজি সুমিতের নামে ওই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করতেই মিশ্র প্রতিক্রিয়া । প্রায় ২০০০ লাইক। তবে নিন্দার ঝড়ও উঠেছে। নেটের মাধ্যমেই দিল্লি পুলিশের কানে প্রথম পৌঁছয় ক্রেজি সুমিতের কর্মকাণ্ড। ৩৫৪ ধারায় শ্লীলতাহানির অভিযোগ দায়ের করা হয় কিশোরের নামে। ভিডিওতে যে মহিলাদের দেখা যাচ্ছে, তাদের সঙ্গেও যোগাযোগ করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে জানান দিল্লি পুলিশের জয়েন্ট কমিশনার দীপেন্দ্র পাঠক।

পুলিশের জালে দিল্লির ‘Serial Kisser’ ! ধরা পড়ে কী বলল সে ?

বেঙ্গালুরুতে বর্ষবরণের দিন শ্লীলতহানির ঘটনায় ইতিমধ্যেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে দেশজুড়ে। কিন্তু ক্রেজি সুমিতের এই নোংরা কীর্তিতে প্রতিবাদের পাশাপাশি লাইকও পড়েছে। প্রশ্ন উঠছে, ক্রেজি সুমিতের মতো কিশোরদের কিভাবে আটকানো যায় তা নিয়ে।

এই ঘটনাকে অবশ্য ফৌজদারি অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে ৷ মহিলারা অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেবে পুলিশ বলেও জানিয়েছেন দিল্লির যুগ্ম কমিশনার দীপেন্দর পাঠক ৷ এতদিন কী করতে সে ? দেখুন সেই ভিডিও নীচে ৷

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES