ভারতে বিনিয়োগ কমাতে নির্দেশ চিনা কোম্পানিগুলিকে

Jul 06, 2017 09:58 AM IST | Updated on: Jul 06, 2017 09:58 AM IST

#বেজিং: ডোকা লা এলাকা নিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরেই ভারত ও চিনের মধ্যে চলছে চাপানউতোর ৷ বুধবারের পর দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক প্রায় তলানিতে গিয়ে পৌঁছেছে ৷ দু’তরফের কেউই আপোস করতে রাজি নয় ৷ এদিন ভারতের তরফেও জানানো হয় ভুটানের এলাকা থেকে সেনা না সরালে কোনও আলোচনা সম্ভব নয় ৷ অন্যদিকে চিনের অভিযোগ ভারত পাঁচশিল চুক্তি লঙ্ঘন করেছে। সেনা সরিয়ে ভারত এই ভুল ঠিক করে নিক বলেও জানিয়েছে তারা।

এরকম পরিস্থিতিতে দেশের নাগরিকদের ভারতে যেতে নিষেধ করা হয়েছে চিনা বিদেশ মন্ত্রকের তরফে ৷ সাধারণত যুদ্ধ শুরু হওয়ার আগে এমন সর্তকর্তা জারি করা হয়ে থাকে ৷ তাহলে কী দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধ লাগতে চলেছে ? পাশাপাশি চান কোম্পানিগুলিকে ভারতে বিনিয়োগ কমানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ৷

ভারতে বিনিয়োগ কমাতে নির্দেশ চিনা কোম্পানিগুলিকে

বুধবার ভারত স্পষ্ট বুঝিয়ে চিনের চাপসৃষ্টিতে পিছু হঠবে না ভারত ৷ বরং পাল্টা চিনকে ভুটানের এলাকা থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়ার বার্তা দিল দিল্লি ৷ ডোকা লা এলাকা নিয়ে যে সমস্যা তার কূটনৈতিক সমাধান সম্ভব এবং ভারতও তাই চায় ৷ কিন্তু তার আগে চিনা সেনাকে সেখান থেকে সরে যেতে হবে ৷ জানানো হয় এর আগে চিনা সেনা যেখানে ছিল সেখানেই তাদের ফিরে যেতে হবে ৷ চিনা সেনা ভুটানের এলাকায় অনুপ্রবেশ করেছে ৷ এটা তাদের করা উচিৎ হয়নি ৷ গতকাল একথা বলেন ভারতীয় প্রতিরক্ষা রাষ্ট্রমন্ত্রী সুভাষ ভামরে।

চিনের তরফে জানানো হয়েছে যদি ভারত সত্যিই শান্তি চায়, তবে ডোকা লা থেকে সেনা সরাতে হবে। তা না হলে পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে ৷ এমনকী যুদ্ধ পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে ৷ এবং যুদ্ধ হলে ১৯৬২ সালের থেকে খারাপ অবস্থা হবে ভারতের ৷ চিনকে পাল্টা বার্তায় ভারত জানিয়ে দিয়েছে চিনের চাপসৃষ্টিতে পিছু হঠবে না ভারত ৷ ১৯৬২-র থেকে ২০১৭-র ভারত এখন অনেক আলাদা ৷ যুদ্ধের পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে তার মোকাবিলা করতে ভারত এখন একদম তৈরি ৷

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES