পরিস্থিতি অনুকূল নয়, তাই বাতিল করা হল মোদি-জিংপিং বৈঠক

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jul 06, 2017 04:11 PM IST
পরিস্থিতি অনুকূল নয়, তাই বাতিল করা হল মোদি-জিংপিং বৈঠক
Photo : AFP
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jul 06, 2017 04:11 PM IST

#নয়াদিল্লি: ভারতের সঙ্গে আলোচনায় ‘না’ চিনের ৷ সিকিম সীমান্ত নিয়ে গত ১৯ দিন ধরেই দুই দেশের মধ্যে চাপানউতর চলছে ৷ তার জেরেই আলোচনা বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে চিন ৷ বৃহস্পতিবার G-20 সামিটে বৈঠকের কথা ছিল মোদি-জিংপিঙের ৷ কিন্তু এখন দু’দেশের মধ্যে পরিস্থিতি অনুকূল ময় তাই বাতিল করা হল বৈঠক ৷

জার্মানির হামবুর্গ শহরে আয়োজন করা হয়েছে জি-২০ সম্মেলনের । সেখানে দুই দেশের রাষ্ট্রপ্রধানের দ্বিপাক্ষিক বিষয় নিয়ে বৈঠক করার কথা ছিল ৷ কিন্তু সিকিম নিয়ে গত কয়েকদিনে দু’দেশের সম্পর্ক তলানিতে এসে পৌঁছেছে ৷ তার জেরেই বাতিল করা হয়েছে বৈঠক ৷

G-20 সামিটের আগে চিনের বিদেশ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, ‘দুই দেশের মধ্যে এখন পরিস্থিতি সঠিক নয় ৷ তাই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও জিংপিঙের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক বাতিল করা হয়েছে ৷’

বেশ কয়েকদিন ধরেই ভারত ও চিনের মধ্যে টানাপোড়েন অব্যাহত ৷ ভারত, ভুটান ও চিনের মধ্যবর্তী সীমান্তে ডোকা লা এলাকায় ঢুকে পড়েছে চিনা আর্মি ৷ জানা গিয়েছে, সেখানে রাস্তার তৈরির কাজও শুরু করে দিয়েছে চিন ৷ সেই কাজে দিল্লি ও থিম্পু বাধা দিতেই সমস্যার সূত্রপাত ৷ এরপর থেকেই দু’দেশের মধ্যে উত্তেজনা চলছে ৷ দুই দেশের তরফেই ওই এলাকায় উল্লেখযোগ্যভাবে সেনা মোতায়ন বাড়িয়েছে ৷

বুধবার ভারত স্পষ্ট বুঝিয়ে চিনের চাপসৃষ্টিতে পিছু হঠবে না ভারত ৷ বরং পাল্টা চিনকে ভুটানের এলাকা থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়ার বার্তা দিল দিল্লি ৷ ডোকা লা এলাকা নিয়ে যে সমস্যা তার কূটনৈতিক সমাধান সম্ভব এবং ভারতও তাই চায় ৷ কিন্তু তার আগে চিনা সেনাকে সেখান থেকে সরে যেতে হবে ৷ জানানো হয় এর আগে চিনা সেনা যেখানে ছিল সেখানেই তাদের ফিরে যেতে হবে ৷ চিনা সেনা ভুটানের এলাকায় অনুপ্রবেশ করেছে ৷ এটা তাদের করা উচিৎ হয়নি ৷ গতকাল একথা বলেন ভারতীয় প্রতিরক্ষা রাষ্ট্রমন্ত্রী সুভাষ ভামরে।

ভারত জানিয়েছে ডোকালাম ভুটানের ৷ চুক্তি অনুযায়ী ভুটানকে সামরিক ও কূটনৈতিক সমর্থন দেওয়ার কথা ভারতের ৷ তাই সেনা প্রত্যাহার করার কোনও প্রশ্নই নেই ৷

অন্যদিকে চিনের অভিযোগ, ভারত পাঁচশিল চুক্তি লঙ্ঘন করেছে। সেনা সরিয়ে ভারত এই ভুল ঠিক করে নিক বলেও জানিয়েছে তারা। এরই উত্তরে ভারত তাদের অবস্থান স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে ৷

First published: 04:11:50 PM Jul 06, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर