দ্রুততম ব্যাটসম্যান হিসেবে ৮ হাজারের শৃঙ্গ ছুঁলেন কোহলি

Jun 16, 2017 02:12 PM IST | Updated on: Jun 16, 2017 02:12 PM IST

#বার্মিংহ্যাম: এজবাস্টনে চরম একপেশে সেমিফাইনাল। ৯ উইকেটে বাংলাদেশ বধ সেরে চ্যাম্পিয়ন্সের ফাইনালে ভারত। অপরাজিত ১২০ রানে ফের ম্যাচের সেরা রোহিত। ৮ হাজারের শৃঙ্গ ছুঁয়ে কোহলির ৯৬ নট-আউট। বল হাতে ভুবি, বুমরাহ, কেদারের জোড়া শিকার। মেগা-ফাইনালে এবার সামনে পাকিস্তান।

একদিনের ক্রিকেটে এদিনই দ্রুততম ৮ হাজারি মাইলস্টোন সেরে ফেললেন বিরাট। মাত্র ১৭৫ ইনিংসে এই মাইলস্টোন ছুঁলেন ভারত অধিনায়ক ৷ এর আগে এই রেকর্ড ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যান এবি ডেভিলিয়ার্সের দখলে ৷ ওয়ান ডে-তে ৮০০০ রান করতে তাঁর লেগেছিল ১৮২টি ইনিংস ৷ এব্যাপারে তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানে রয়েছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (২০০ ইনিংস) এবং সচিন তেন্ডুলকর (২১০ ইনিংস) ৷

দ্রুততম ব্যাটসম্যান হিসেবে ৮ হাজারের শৃঙ্গ ছুঁলেন কোহলি

Photo: PTI

ক্যাডবেরির শহরে তিক্ততার ব্যাকড্রপে ম্যাচটা শুরু হয়েছিল বৃহস্পতিবার। তিক্ততাটা ২ বছরের পুরনো। সেই মেলবোর্ন থেকে চলে আসছে। শেক্সপিয়রের পাড়ায় পিঠোপিঠি জাতীয় সঙ্গীতে জোড়া রবীন্দ্রসঙ্গীতে যে মিনি ডার্বির শুরু, তা শেষ হল চরমতম একপেশেভাবে। রোদ্দুর ঝকঝকে এজবাস্টনে ফের বাংলাদেশের বিভীষিকা হয়ে দাঁড়াল রোহিত শর্মার ব্যাট। ১২৯ বলে ম্যাচ জেতানো ১২০ নট আউট। কেরিয়ারের একাদশ ওয়ান-ডে সেঞ্চুরি। উল্টোদিকে সেঞ্চুরির মাত্র ৪ রান দূরে অপরাজিত অধিনায়ক।  তার আগেই ঝোড়ো ৪৬ রানে শক্ত ভিত গড়ে দিয়ে যান শিখর। ৫৯ বল হাতে নিয়ে ৯ উইকেটে জয়কে একপেশে দুরমুশ ছাড়া আর কীই বা বলা যায়!

মাশরাফিরা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রথম সেমিফাইনালে নামার আগেও পারদ চড়িয়ে দিয়েছিলেন পদ্মাপারের ক্রিকেট অনুরাগীরা। প্রাক মিনি-ডার্বির আবহে ফুলকি ছড়িয়েছিল কোহলির মন্তব্য। ঢাকার ওয়েবসাইটের কার্টুন। আর ধর্মসেনাকে জড়িয়ে আকাশকুসুম গসিপ। কিন্তু টসে হেরে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশকে টানছিলেন তামিম আর মুশফিকুর। তামিমকে ৭০ আর মুশফিকে ৬১ রানে তুলে নিয়ে আসল ধাক্কাটা দিলেন অনিয়মিত কেদার যাদব। এরপরই ভেঙে পড়ে টাইগারদের মিডল অর্ডার। বল হাতে আগাগোড়া শৃঙ্খলা রেখে জোড়া শিকার ভুবি-বুমরাহর নামের পাশে। স্লগে মাশরাফির ৩০ নট আউট দলকে ২৬৪-তে পৌঁছে দিলেও তা যথেষ্ট ছিল না। দিনের শেষে ফের রো-হিটেই ফ্লপ টাইগারদের গর্জন। আর বাকি ৪৮ ঘণ্টা ৷ ইন্দো-পাক ফাইনালের বক্সঅফিসে কাউন্টডাউন শুরু।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES