কালিম্পঙে বিক্ষোভের মুখে দিলীপ, সমর্থন আদায়ে কৌশলী বিজেপি

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Oct 04, 2017 05:35 PM IST
কালিম্পঙে বিক্ষোভের মুখে দিলীপ, সমর্থন আদায়ে কৌশলী বিজেপি
দিলীপ ঘোষ
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Oct 04, 2017 05:35 PM IST

 #দার্জিলিং: পাহাড়বাসীর সঙ্গে দূরত্ব ঘোচাতে নয়া কৌশল বিজেপির। পাহাড়ে পা দিয়ে বিমল গুরুংকেই খোলাখুলি সমর্থন জানালেন দিলীপ ঘোষ। মঙ্গলবার,কলকাতা সফরে এসে ভারতীয় জাতীয়তাবাদ নির্মাণে সিস্টার নিবেদিতার ভূয়সী প্রশংসা করেন সংঘপ্রধান মোহন ভাগবত। চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে উল্টো পথে হেঁটে, নিবেদিতার স্মৃতি বিজড়িত রায় ভিলায় হামলাকারীদের পাশে দাঁড়ালেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। কিন্তু, পাহাড়বাসীর বিক্ষোভে পড়ে মুখ থুবড়ে পড়েছে সেই কৌশল।

বুধবার রাজ্যে এসে, ভারতীয় জাতীয়তাবাদ নির্মাণে সিস্টার নিবেদিতার ভূমিকা নিয়ে ভূয়সী প্রশংসা করেন সংঘপ্রধান মোহন ভাগবত। তার চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যেই ভিন্ন সুর বিজেপির রাজ্য সভাপতির গলায়। সিস্টার নিবেদিতার স্মৃতি বিজড়িত রায় ভিলায় ভাঙচুরকারীদেরই সমর্থন করলেন দিলীপ ঘোষ। বিমল গুরুংকেই পাহাড়ের নেতা হিসেবে তুলে ধরলেন তিনি।

পাহাড়ে বনধ চলাকালীন ভাঙচুর চলে দার্জিলিঙের রায় ভিলায়। হামলা চালায় বিমল গুরুং পন্থী মোর্চা ক্যাডাররাই। সেই ঘটনা অজানা নয় দিলীপ ঘোষেরও। কিন্তু, তা সত্ত্বেও কেন এই কৌশল?

পাহাড়ে বিজেপির কৌশল

- পাহাড়ে বনধ-আন্দোলন চলাকালীন পা পড়েনি সাংসদ এস এস আলুওয়ালিয়া ও রাজ্যের বিজেপি নেতাদের

- পাহাড়বাসীর ক্ষোভ আঁচ করে সেই ক্ষতে মলম দিতে তৎপর গেরুয়াশিবির

- তাই বনধ উঠতেই দার্জিলিং সফরের কৌশল বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের

- কৌশলের অঙ্গ হিসেবেই বিমল গুরুংকে ‘পাহাড়ের নেতা’ বলে সম্বোধন

বিজেপির এই পাহাড় সফরে জল যে কতটা ঘোলা হতে পারে তার ইঙ্গিত আগেই দিয়েছিলেন মোর্চা নেতারা। বেলা গড়াতেই তা সত্যি হল। ডাহা ফেল করল বিজেপির সমর্থন আদায়ের কৌশল। কালিম্পঙে দিলীপ ঘোষ ও তাঁর দলবল পৌঁছতেই শুরু হয় বিক্ষোভ। ওঠে গো ব্যাক স্লোগানও।

তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি, পাহাড়ে বিজেপি নতুন করে উসকানি দেওয়ার চেষ্টা করলেও তা ঠোক্কর খেয়েছে। দিলীপের পাহাড় সফরকে কটাক্ষ করে তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘গন্ডগোল পাকাতেই পাহাড়ে দিলীপ ঘোষ ৷ প্রকাশ্যে গুরুঙের পাশে দাঁড়াচ্ছেন ৷ পাহাড় অশান্ত করতে চাইছেন ৷ সমতলের মিশন ব্যর্থ হয়েছে ৷ তাই এখন উনি পাহাড়ে গিয়েছেন ৷ যেখানেই যান, চেষ্টা ব্যর্থ হবে ৷’

বনধ-আন্দোলন শুরু হতেই পাহাড় ছেড়েছেন বিমল গুরুং। দেখা মেলেনি বিজেপি নেতাদেরও। পৃথক রাজ্যের দাবিতে ফুঁ দিয়ে আগুন যে আর জ্বালানো যাবে না বুধবার গেরুয়াশিবিরকে তা স্পষ্ট বুঝিয়ে দিয়েছে পাহাড়।

First published: 05:28:08 PM Oct 04, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर