‘বিজেপি কোনও থ্রেট নয়, ওদের ভয় পাব কেন?’: মমতা

Apr 20, 2017 06:29 PM IST | Updated on: Apr 21, 2017 02:27 PM IST

#ভুবনেশ্বর: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ওড়িশার সফরে দু’দিন আগেই ভুবনেশ্বরের মাটিতে পা রেখেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৷ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের নিয়ে বিশেষ বৈঠকেও সেরেছিলেন মোদি ৷ তার পরে পরেই মমতার ওড়িশা সফর নিয়ে রাজনৈতিক মহলে দেখা গিয়েছিল সোরগোল ৷ প্রশ্ন উঠেছিল, মোদির পর মমতার ওড়িশা সফরের পিছনে কি রয়েছে বিশেষ কোনও কারণ ? তবে সে প্রশ্নের পরিষ্কার উত্তর না পাওয়া গেলেও, মুখ্যমন্ত্রী মমতা জানিয়েছিলেন, অসুস্থ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে সাক্ষাতই মূল এই ওড়িশা সফরে ৷

রাজনৈতিক কর্মসূচি না থাকলেও, মমতার ওড়িশা সফরে রাজনীতির ছোঁয়া লেগেছে। মুখ্যমন্ত্রীর ওড়িশা সফর নিয়ে বেশ কেয়কদিন ধরেই চলছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। তৃণমূলের দাবি ছিল , ব্যক্তিগত সফরে পুরীর জগন্নাথ মন্দিরে পুজো দিতে গিয়েছেন দলনেত্রী। তবে সফরের শেষ দিনে ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী সঙ্গে বৈঠক করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ আর সেই বৈঠক শেষে বিজেপি-র উদ্দ্যেশে স্পষ্টই বললেন, ‘বিজেপি কোনও থ্রেটই নয়, ওদের ভয় পাব কেন?’

‘বিজেপি কোনও থ্রেট নয়, ওদের ভয় পাব কেন?’: মমতা

বৃহস্পতিবার ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়কের সঙ্গে বিশেষ বৈঠক করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ বৈঠক শেষে তিনি জানান, ‘ আমরা আঞ্চলিক দল ৷ প্রতিবেশী রাজ্যগুলির মধ্যে সুসম্পর্ক রয়েছে ৷ সুসম্পর্ক বজায় রাখতেই আমার আসা ৷ বৈঠকে আজ রাজনৈতিক আলোচনা হয়নি ৷ এক দিনে রাজনৈতিক আলোচনা সম্ভব নয় ৷’

সঙ্গে বিজেপি-র উদ্দ্যেশে তিনি বললেন, ‘বিজেপিকে ভয় পাব কেন? ৷ বিজেপিকে ঠেকাতে আঞ্চলিক দলগুলিই যথেষ্ট ৷ দল ভাঙার খেলায় নেমেছে বিজেপি ৷ মুসলিম-হিন্দুদের মধ্যে বিভাজনের রাজনীতি ৷ BJD-র সঙ্গে জোট নিয়ে বলার সময় এখন নয় ৷ ’

গত সপ্তাহেই ভুবনেশ্বরে মেরুকরনে আস্থা রেখে সংগঠন বাড়ানোর প্রস্তাব নিয়েছে বিজেপি। সেই ভুবনেশ্বর থেকেই ধর্মীয় সংকীর্ণতা ও মেরুকরণের বিরুদ্ধে সরব হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES