পণের টাকা না পেয়ে শ্বাসরোধ করে স্ত্রীকে খুন, অভিযোগ পুলিশকর্মীর বিরুদ্ধে

Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Oct 09, 2017 08:16 PM IST
পণের টাকা না পেয়ে শ্বাসরোধ করে স্ত্রীকে খুন, অভিযোগ পুলিশকর্মীর বিরুদ্ধে
Photo: ETv
Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Oct 09, 2017 08:16 PM IST

#বর্ধমান: দাবি মতো বাপের বাড়ি থেকে টাকা না আনায় শ্বাসরোধ করে স্ত্রীকে খুন করার অভিযোগ উঠল পূর্ব বর্ধমানের এক পুলিশ কর্মীর বিরুদ্ধে। মৃতার নাম অনন্যা ভট্টাচার্য। স্বামী কনস্টেবল দীপঙ্কর ভট্টাচার্য পলাতক। দীপঙ্কর শ্বাসরোধ করে মেয়েকে খুন করেছে বলে অভিযোগ মৃতার বাবার।

বর্ধমানের বড়নীলপুরে ভাড়াবাড়িতে চার বছরে ছেলেকে নিয়ে থাকতো ওই দম্পতি। রবিবার রাতে সেখানে অনন্যার ঝুলন্ত অচৈতন্য দেহ উদ্ধার হয়। বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করে। আজ বর্ধমান পুলিশ মর্গে মৃতদেহের ময়না তদন্ত হয়।

অনন্যার বাপের বাড়ি বাঁকুড়া জেলার বেলিয়াতোড়ের গোপাবানি গ্রামে। পাঁচ বছর আগে ওই গ্রামেরই বাসিন্দা দীপঙ্করের সঙ্গে তার দেখাশোনা করে বিয়ে হয়। বিয়েতে পন বাবদ দু লক্ষ টাকা, দশ ভরি সোনার গয়না ও আসবাব দেওয়া হয়।

অনন্যার বাবা পঞ্চানন গাঙ্গুলীর অভিযোগ, বিয়ের এক বছর পর থেকেই বাপের বাড়ি থেকে টাকা আনার চাপ দেওয়া হতো। টাকা না দিলে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চলতো। পাঁচ বছরে পাঁচ লক্ষ টাকা দিতে হয়েছে। পুজোর আগেও টাকা চেয়ে চাপ দেওয়া হয়। পনের হাজার টাকা দেওয়া হয়। পোস্টিং এর জন্য আরও টাকা দাবি করেছিল দীপঙ্কর। সেই টাকা দিতে না পারার জন্যই দীপঙ্কর শ্বাসরোধ করে অনন্যাকে খুন করেছে বলে তাঁর অভিযোগ। ঘটনার পর থেকেই ওই কনস্টেবলের হদিশ নেই। বর্ধমান থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

First published: 08:16:30 PM Oct 09, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर