বাবা-মায়ের যত্ন না নিলে কেটে নেওয়া হবে সরকারী কর্মীদের বেতন

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Sep 17, 2017 03:13 PM IST
বাবা-মায়ের যত্ন না নিলে কেটে নেওয়া হবে সরকারী কর্মীদের বেতন
old couple
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Sep 17, 2017 03:13 PM IST

#গুয়াহাটি: যারা জন্ম দিয়েছেন বা যাদের হাত ধরে জীবনে নিজের পায়ে দাঁড়ানো সম্ভব হয়েছে, একদিন তাদের কথাই ভুলে যায় মানুষ ৷ সারা জীবন অক্লান্ত পরিশ্রম করে সন্তানকে বড় করে তোলার উপহার হিসেবে বাবা-মায়েদের কপালে জোটে অবহেলা-বঞ্চনা ৷ বৃদ্ধ বয়সে বাবা-মাকে একা ফেলে আলাদা হয়ে যাওয়ার ঘটনা তো আমাদের বহু চেনা ৷ কিন্তু এবার এই চিত্র বদলাতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ অসম সরকার ৷

বৃদ্ধ বাবা-মায়ের যত্ন না নিলে, শারীরিক কিংবা মানসিক অত্যাচার চালালে অথবা দায়িত্বজ্ঞানহীন ভাবে একা ফেলে আলাদা বাড়ি বা ফ্ল্যাটে চলে যাওয়ার অভিযোগ কোনও সরকারি কর্মীর বিরুদ্ধে উঠলে কড়া পদক্ষেপ নেবে অসম সরকার ৷ শাস্তি হিসেবে কেটে নেওয়া হবে ওই কর্মীর বেতনের ১০-১৫ শতাংশ ৷ এই মর্মে অসম এমপ্লয়িজ পেরেন্টস রেসপনসিবিলিটি অ্যান্ড নর্মস ফর অ্যাকাউন্টেবিলিটি অ্যান্ড মনিটরিং বিল এনেছে রাজ্য ৷

শুধু বাবা-মা অথবা অভিভাবকই না পঙ্গু ভাই-বোনদের অবহেলা বা কোনও দুর্ব্যবহার করলে জুটবে একই শাস্তি ৷ অসমের অর্থমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা জানিয়েছেন, এই বিল কোনও সরকারি কর্মী যদি বৃদ্ধ বাবা মা অথবা পঙ্গু ভাইবোনের দায়িত্ব নিতে অস্বীকার করেন, তাহলে তাঁর বাবা-মা বা প্রতিবন্ধী ভাই বোনেরা সংশ্লিষ্ট বিভাগে অভিযোগ জানাতে পারবেন ৷ অভিযোগ সত্যি প্রমাণিত হলে ওই অভিযুক্ত কর্মীর বেতনের ১০-১৫ শতাংশ টাকা কেটে নিয়ে তাঁর বাবা-মাকে দিয়ে দেবে সরকার ৷

এই বিলটির নাম অসম এমপ্লয়িজ প্রণাম বিল। এই বিল পাস হলে বেসরকারি সংস্থার কর্মীদের জন্যেও শীঘ্রই এমন বিল নিয়ে আসার পরিকল্পনা রয়েছে অসম সরকারের ৷

অসমের সিংহভাগ বাসিন্দা এই বিলকে সমর্থন জানালেও অপরপক্ষ এই বিলকে সরকারী কর্মীদের ব্যক্তিগত স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ বলে সমালোচনা করেছেন ৷

First published: 03:09:39 PM Sep 17, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर