‘তাজমহল’-এ সংস্কারে এক পয়সাও খরচ করবে না যোগীর বাজেট

Jul 13, 2017 07:55 PM IST | Updated on: Jul 16, 2017 05:47 PM IST

#লখনউ: বিশ্বের সপ্তম আশ্চর্যের মধ্যে অন্যতম হল মোঘল সাম্রাজ্যে তৈরি ‘তাজমহল’ ৷ গোটা বছরই তাজমহলে ভিড় জমায় অংসখ্য মানুষ ৷ গোটা বিশ্বের কাছে ভারতের এক রূপকে তুলে ধরতে সমর্থ এই তাজমহল ! কিন্তু এই ব্যাপারটা একেবারেই যেন মানতে চান না, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ৷ বিরোধী পক্ষ অবিযোগ তুলেছেন, যোগীর প্রথম রাজ্য বাজেট থেকে সংস্কারের তালিকা থেকে বাদ পড়েছে আগ্রার তাজমহল ৷ যেখানে বারাণসী, মথুরা, চিত্রকূট, বৃন্দাচলের বিকাশের জন্য রাজ্য বাজেটে যোগী সরকার উত্তরপ্রদেশের ‘সাংস্কৃতিক সম্পত্তি’র বিভাগে জায়গা পেয়েছে এই নামগুলি ৷ সেখান থেকেই বাদ পড়েছে তাজমহল ৷ মোট ২৮০০ কোটি টাকা সংস্কার বাবদ রাজ্য বাজেটে ধার্য করা হয়েছে ৷ কিন্তু তাজমহলের জন্য এক পয়সাও ধার্য করেনি যোগীর বাজেট ৷

বিরোধীনেতারা অভিযোগ তুলেছেন, যোগীর এই পদক্ষেপ একেবারে ধর্মী ভাবাবেগ থেকে ৷ তাজমহল শুধুমাত্র মোঘল সাম্রাজ্যে তৈরি হওয়া ও মুসলিম স্মৃতিসৌধ হওয়াতেই সমস্যা হয়েছে যোগী সরকারে৷ আর সেই কারণেই সংস্কারের তালিকা থেকে বাদ পড়েছে তাজমহল ৷

‘তাজমহল’-এ সংস্কারে এক পয়সাও খরচ করবে না যোগীর বাজেট

তবে এ ঘটনা প্রথম নয়, এর আগে গোটা বিশ্বের সামনে ভারতীয় সংস্কৃতিতে তুলে ধরতে এবার নতুন পরামর্শ দিয়েছিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ৷ যোগীর কথায়, তাজমহল বা কোনও মিনারের প্রতিকৃতি নয়, বিশ্ববাসীর সামনে ভারতীয় সংস্কৃতি তুলে ধরতে বিদেশিদের ভগবত গীতা বা রামায়ণের মতো মহাকাব্য উপহার দেওয়া উচিত।

ভারতের দর্শনীয় জায়গাগুলোর মধ্যে বিদেশিদের কাছে সর্বদাই প্রিয় আগ্রার তাজমহল ৷ এমনকী, পৃথিবীর সপ্তম আশ্চর্যের মধ্যেও রয়েছে এই তাজমহল ৷ আর তাই শুধু সাধারণ বিদেশিরা নয়, বহু জনপ্রিয় মানুষ তা মার্কিন প্রেসিডেন্ট হন বা হলিউডের তাবড় অভিনেতা, ইংল্যান্ডের রাজপরিবার ৷ সবাই একবার না একবার তাজমহলে এসেছেন ৷ আর বিদেশিদের বেশিরভাগ সময়ই মেমেন্টো হিসেবে দেওয়া হয়ে থাকে তাজমহল ৷ এই নিয়মকে বদলানোর পরামর্শ দিয়েছেন যোগী ৷

মোদি সরকারের তৃতীয় বর্ষের উদযাপেন বিহারের এক জনসভায় উপস্থিত হয়েছিলেন যোগী৷ এই জনসভায় তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বিদেশ সফরে গেলে অথবা বিদেশের কোনও রাষ্ট্রপতি এ দেশে এলে মেমেন্টো হিসেবে তাঁকে দেওয়া হচ্ছে ভগবত গীতা। এ দেশে প্রথমবার এমনটা হচ্ছে। আগামী দিনেও হবে। কারণ তাজমহল অথবা কোনও মিনার ভারতের সংস্কৃতি সম্বন্ধে কোনও ধারণা তৈরি করতে পারে না। কিন্তু কোনও বিদেশি অতিথিকে রামায়ণ উপহার দিলে তিনি বিহারের ইতিহাস সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য জানতে পারবেন।’

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES