জিডি বিড়লার নির্যাতিতা শিশুর নতুন মেডিক্যাল রিপোর্টে চাঞ্চল্য, ধন্দে তদন্তকারীরা

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Dec 07, 2017 06:37 PM IST
জিডি বিড়লার নির্যাতিতা শিশুর নতুন মেডিক্যাল রিপোর্টে চাঞ্চল্য, ধন্দে তদন্তকারীরা
Representational Image
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Dec 07, 2017 06:37 PM IST

#কলকাতা: জিডি বিড়লার নির্যাতিতা শিশু এখন শারীরিকভাবে সুস্থ। জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। গতরাতে তলপেটে ব্যথা নিয়ে সল্টলেকের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি করা হয় শিশুটিকে। শিশুটির দ্বিতীয় শারীরিক পরীক্ষার রিপোর্টে রক্তক্ষরণের কোনও চিহ্ন পাওয়া যায়নি বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর। হাসপাতালে ভর্তি থাকায় আজ আলিপুর আদালতে নির্যাতিতার গোপন জবানবন্দি নেওয়া যায়নি ।

ঘটনার পর কেটে গেছে ছদিন। ক্ষোভে-বিক্ষোভে উত্তাল জি ডি বিড়লার শুরু হয়েছে ক্লাস। অভিভাবকদের দাবি মেনে ছুটিতে পাঠানো হয়েছে প্রিন্সিপাল শর্মিলা নাথকে। এর মধ্যেই নির্যাতিতা শিশুর শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ বেড়েছে। বুধবার রাতে তলপেটে ব্যথা হওয়ায় সল্টলেকের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি করা হয় শিশুটিকে। স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, শিশুটি সুস্থ আছে। তাকে ছুটি দিয়ে দেওয়া হয়েছে।

শিশু বিশেষজ্ঞ রাজেশ কুমার গোয়েলের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা চলে শিশুটির। তাকে দেখতে যান শিশু সুরক্ষা কমিশনের চেয়ারপার্সন অনন্যা চক্রবর্তী।

এদিকে বুধবার এসএসকেএমে নির্যাতিতা শিশুটির মেডিকো লিগাল পরীক্ষা হয়। সেই রিপোর্ট অনুযায়ী,

-অ্যাক্টিভ ব্লিডিং বা সক্রিয় রক্তক্ষরণের চিহ্ন পাওয়া যায়নি

-গোপনাঙ্গের বাইরে কোনও ক্ষতচিহ্ন নেই

-শরীরের পিছন দিকে আঁচড়ের দাগ আছে

-যোনিপথ ছিঁড়ে যাওয়ার কোনও প্রমাণ মেলেনি

-শরীরের অন্য কোথাও আঘাতের দাগ নেই

এই রিপোর্টে আরও ধন্দে তদন্তকারীরা। যদিও ঘটনার ছদিন বাদে আঘাতের প্রমাণ কতটা মিলবে তা নিয়ে সংশয়ে চিকিৎসকদেরই একাংশ। যদিও এটা ঠিক মোবাইলে অভিযুক্তদের ছবি দেখে চিহ্নিত করেছিল শিশুটি। একইসঙ্গে জানিয়েছিল, চকোলেটের লোভ দেখিয়ে স্কুলের শৌচালয় নিয়ে গিয়ে তাকে আঘাত করেছে দুই শিক্ষক।

এদিন হাসপাতালে ভর্তি থাকায় শিশুর গোপন জবানবন্দিও নেওয়া যায়নি। সরকারি আইনজীবীর আবেদন মেনে ১৬৪ নম্বর ধারায় ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে নির্যাতিতার গোপন জবানবন্দি নিতে রাজি হয় আলিপুর আদালত।

First published: 06:37:32 PM Dec 07, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर