অসমের শিক্ষা দফতরে ব্রাত্য রবিঠাকুর, বিদ্যালয়ে রবীন্দ্রজয়ন্তী পালনে বাধা !

Akash Misra | News18 Bangla
Updated:May 08, 2017 08:48 PM IST
অসমের শিক্ষা দফতরে ব্রাত্য রবিঠাকুর, বিদ্যালয়ে রবীন্দ্রজয়ন্তী পালনে বাধা !
Photo : AFP
Akash Misra | News18 Bangla
Updated:May 08, 2017 08:48 PM IST

#গুয়াহাটি: রবিঠাকুরের জন্মতিথি পালনকে কেন্দ্র করে এবার বিতর্কের ঝড় উঠল গোটা অসম উপত্যকায় ৷ দীর্ঘদিনের প্রথা ভেঙে অসমের বিদ্যালয়গুলিতে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মজয়ন্তী পালনে বাধার মুখে পড়তে চলল অসমের বিদ্যালয়গুলি ৷ অসম শিক্ষা দফতরের নতুন এক নির্দেশ নিয়েই বিতর্ক উঠল অসমের নানা মহলে ৷

মঙ্গলবার অর্থাৎ ৯ মে রবিঠাকুরের ১৫৭ তম জন্মজয়ন্তী ৷ আর তা কীভাবে পালন করা হবে তা নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন অসমের বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও পড়ুয়ারা ৷ আর এই সমস্যার মূলে রয়েছে রাজ্যের মাধ্যমিক শিক্ষা পর্যদ ও স্টেট কাউন্সিল অব এডুকেশন রিসার্চ অ্যান্ড ট্রেনিংয়ের অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডার ৷

অসমের একটি সংবাদপত্রে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, রাজ্যের মাধ্যমিক শিক্ষা পর্যদ ও স্টেট কাউন্সিল অব এডুকেশন রিসার্চ অ্যান্ড ট্রেনিংয়ের অ্যাকাডেমিকের বাৎসরিক ক্যালেন্ডারে রবিঠাকুরের জন্মজয়ন্তী পালনের কোনও উল্লেখ নেই ৷ আর এই নিয়েই নানা প্রশ্ন উঠেছে শিক্ষা মহল ছাড়াও অন্যান্য মহলে ৷ অনেকেই মনে করছেন, অসমের মসনদ এখন বিজেপি শাসিত ৷ এই সরকার সৌভাতৃত্বের কথা বললেও, চিত্রটা বিপরীতই ৷ স্বভাবতই এই নিয়ে বিরোধী দলের মধ্যে নিন্দার ঝড় বইতে শুরু করেছে ৷ তবে বিপদে পড়েছেন অসমের বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও পড়ুয়ারা ৷ সবার মুখে একটাই প্রশ্ন, রবিঠাকুরের জন্মজয়ন্তীতে শ্রদ্ধা নিবেদন করলে কি ‘নির্দেশিকা অমান্য’ করা হবে ? এই প্রশ্নের মুখে পড়ে, দোটানায় পড়েছেন বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষরা ৷

বিধায়ক কমলাক্ষ দেপুরকায়স্থ অসমের এক বাংলা দৈনিককে জানিয়েছে, ‘বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী বরাক ও ব্রহ্মপুত্রের মিলেনর কথা বলেন, এক হয়ে চলার কথা বলেন ৷ অথচ শিক্ষাক্ষেত্রে অ্যাতাডেমিক ক্যালেন্ডার তৈরি করার সময় রবিঠাকুরকে ভুলে যান ৷ এর থেকে পরিতাপের বিষয় আর কী হতে পারে ?’

First published: 08:48:24 PM May 08, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर