ব্যস্ত রাস্তায় যুবতীকে বেঁধে ৩ ঘণ্টা ধরে চলল গণধর্ষণ

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Nov 03, 2017 12:20 PM IST
ব্যস্ত রাস্তায় যুবতীকে বেঁধে ৩ ঘণ্টা ধরে চলল গণধর্ষণ
Representational Image
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Nov 03, 2017 12:20 PM IST

#ভোপাল: ব্যস্ত রাস্তায় ১৯ বছরের যুবতীকে বেঁধে তিন ঘণ্টা ধরে গণধর্ষণ করল চারজন ৷ ভোপালের একটি সেতুর নীচে যুবতীকে বেঁধে রেখে চলে শারীরিক অত্যাচার ৷ তিন ঘণ্টায় একের পর এক চারজন মিলে নিগ্রহ করে যুবতীকে ৷ এমনকি বিরতি নিয়ে চা ও গুটখা খেয়ে ফিরে এসে অত্যাচর শুরু করে ধর্ষকরা ৷ ভোপালের হাবিবগঞ্জ এলাকার খুব কাছে একটি সেতুর নীচে ঘটেছে এই ঘটনা।

মেয়েটিকে ছেড়ে দেওয়ার পরের ঘটনা আরও মর্মান্তিক ৷ নির্যাতিতা থানায় অভিযোগ দায়ের করাতে গেলে তিনটি থানা এফআইআর নিতে অস্বীকার করে ৷ মেয়েটির বাবা মা দুজনেই পুলিশে চাকরি করেন তা সত্ত্বেও অভিযোগ নিতে চায়নি পুলিশ ৷ বরং অবহেলা করে জানায় যে সিনেমার গল্প বলছে যুবতী ৷ বুধবার অভিযুক্তদের ধরতে গেলে তাদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়তে অভিযোগ নিতে বাধ্য হয়েছে পুলিশ ৷

আশ্চর্যের বিষয় হল যেখানে যুবতীকে ধর্ষণ করা হয় তার চারপাশে অত্যন্ত ব্যস্ত রাস্তা রয়েছে ৷ মাত্র ১০০ মিটার দূরে হাবিবগঞ্জ স্টেশন রয়েছে ও ৫০ মিটার দূরে অবস্থিত আরপিএফ পোস্ট ৷ তা সত্ত্বেও পুরো বিষয়টি কারোর নজরে আসেনি ৷

জানা গিয়েছে UPSC পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছিল যুবতী ৷ প্রতিদিন কোচিংয়ের জন্য শাটলে করে ভোপাল থেকে সফর করতে হত ৷ মঙ্গলবার সন্ধে ৭টা নাগাদ কোচিং ক্লাসের পর হাবিবগঞ্জ স্টেশনের দিকে তিনি হেঁটে যাচ্ছিলেন। সেই সময় অভিযুক্ত গোলু তার হাত ধরে টানে ৷ নিজের নাবালিকার মেয়ের খুনে অভিযুক্ত গোলু জামিনে বাইরে রয়েছে ৷ নির্যাতিতা তাকে লাথি মারলে সে পড়ে যায় ৷ রাগে তাকে টেনে হিঁচড়ে নিয়ে গিয়ে বেঁধে ফেলে এবং আরও তিন সঙ্গীকে ডেকে একে একে ধর্ষণ করে মেয়েটিকে ৷ এরপর তার কানের দুল, ঘড়ি, মোবাইল নিয়ে মেয়েটিকে ছেড়ে দেয় ধর্ষকরা ৷

First published: 12:20:08 PM Nov 03, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर