নায়িকা সংবাদ: স্পটলাইট নাকি অবসাদের অন্ধকার

Feb 10, 2017 03:18 PM IST | Updated on: Feb 10, 2017 03:18 PM IST

#কলকাতা: শুধুই অন্ধকার ? নাকি অন্ধকার টানেল ভেদ করে আসা অল্প আশার আলো ? এখানেই ক্ল্যাশ ! মন আর মগজের লড়াই৷ কী চাই, কী পেলাম, আর কী কী পেলাম না ! কী হবে পরের কটা দিন ? প্রশ্ন চিহ্নের মাঝে আটকে থেকে ভয়ে গুটিয়ে চাওয়া ৷ গলার মাঝে পাকিয়ে আসা, তীব্র যন্ত্রনা ৷ চিৎকার বেরিয়ে আসার আগের মুহূর্ত ৷ তা আর্তনাদ নয় কেন? কেন গুটিয়ে থাকা ? কেন চুপ করে অন্ধকারকে বেছে নেওয়া ? এই স্পটলাইট কি চেয়েছিল নায়িকা ? এই জীবন গল্পেই কী রোজ রোজ অভিনয় করে যাচ্ছিল নায়িকা? যার ‘দ্য এন্ড’ এতটাই নিষ্ঠুর ৷

ফ্ল্যাটের সিলিং থেকে ঝুলছে দেহ ৷ রক্ত বইছে হাতের শিরা থেকে ৷ বাইরের পৃথিবী বড্ড ব্যস্ত ৷ আর সোশ্যালে দু’দিন আগে লাস্ট পোস্ট, ‘আমি মরলে কার কি যায় আসে ...’

নায়িকা সংবাদ: স্পটলাইট নাকি অবসাদের অন্ধকার

বলিউজের এক নম্বর হিরোইন ৷ একার জোরেই চলছে ছবি ৷ হিরোদের মাত দিয়ে নিজেই ছবির ‘ইউএসপি’ ৷ শ্যুটিং শেষ ৷ ক্যামেরা বন্ধ৷ হাতে বানানো সংলাপ নেই ৷ বরং আয়নার সামনে মেকআপ তুলতে তুলতে নিজের আসল চেহারায় ফেরা ৷ সিল্ক স্মিতা, দিব্যা ভারতী, জিয়া খান, প্রত্যুষা বন্দ্যোপাধ্যায়, দিশা গঙ্গোপাধ্যায়, বিতস্তা পাল ! একের পর এক নাম ৷ আর সংবাদের শিরোনামে একটাই হেডলাইন ‘নায়িকার আত্মহত্যা !’

কেস এগোচ্ছে, তদন্ত চলছে ৷ একের পর এক তথ্য আসছে পুলিশের হাতে ৷ ময়নাতদন্তের টেবিলে ‘নায়িকা’র শরীরে ছুড়ি-কাঁচি ৷ আর বাইরে প্রত্যেক মুহূর্তে, যে জীবন ছেড়েছে সে, তার দিকে হাজার চোখ, লক্ষ আঙুল ৷ প্রেমের সম্পর্ক ? নাকি কাজ হারিয়ে যাওয়ার ভয়ে অবসাদ? স্পটলাইটে থাকা লড়াইয়ে পিছিয়ে পড়া নাকি ‘ভুল’ মানুষকে ভালোবেসে, শেষ পদক্ষেপ !

মনোবিদরা এই পুরো ব্যাপারটা বলা ভালো এই পুরো ‘যুদ্ধ’টাকে অবসাদ নাম দিয়েছেন ৷ মনের কোণা থেকে জমা হয়ে আসা এই অবসাদ, যখন পুরো মনের ভিতরই উপচে পড়ছে, ঠিক তখনই অন্ধকার নামছে ৷ চোখের সামনে তখন জীবন ছিনিয়ে নিতে ‘শয়তান’-এর হাতছানি!

এক সময় দক্ষিণী ছবিতে একটা গানে নেচেই বক্স অফিসকে জোরদার স্টার্ট দিয়েছিল বিজয়ালক্ষ্মী ৷ ফিল্মি নাম সিল্ক স্মিতা ৷ আর এই সিল্ক স্মিতাই কামাল করেছিল গোটা ছবির পর্দায় ৷ সিল্কও পড়েছিল ভালোবাসার ফাঁদে ৷ সেই সময় গোটা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে রটে গিয়েছিল দক্ষিণী এক সুপারস্টারের প্রেমে পড়েছে সিল্ক ৷ আর সেই রটনাই, ঘটনা হয়ে কাল হল স্মিতার জীবনে ৷ সিনেমার লবি রাজনীতিতে পড়ে প্রথমে কেরিয়ার ডুবল ৷ তারপর সেই ডুবন্ত জাহাজে সমাধি নিলেন সিল্ক নিজেই ৷ বেছে নিলেন আত্মহননের পথই !

শুধু স্মিতাই নয়, দিব্যা ভারতী (তবে এই নায়িকার মৃত্যুকে দুর্ঘটনাই ধরা হয়), জিয়া খান, প্রত্যুষা, দিশা ৷ সবারই প্রেমের পরিণতি, পরিণয়ে নয়, বরং মৃত্যুর অন্ধকারে৷ বিতস্তাও করলেন তাই ৷ পারলেন না মন ও মগজের লড়াইয়ে টিকে থাকতে ৷

দীপিকা পেরেছেন ৷ ঘর বন্ধ করে কান্না থেকে বেরিয়ে আলোর মাঝে আসতে ৷ স্পটলাইটের অন্ধকারকে নিজের মগজে না পুরে, শ্যুটিংয়ের মধ্যেই সীমিত রাখতে পেরেছেন দীপিকা ৷ দীপিকা তো নিজেই জানিয়ে ছিলেন, অবসাদে আছেন তিনি ৷ রোজ লড়েছেন৷ ভেঙেছেন রোজ ৷ গুটিয়ে গিয়েছেন সবার থেকে ৷ তবে ফিরেও এসেছেন ৷ নিজেকে সামলেছেন ৷ উঠে দাঁড়িয়েছেন ৷ এগিয়ে গিয়েছেন৷ এগিয়ে যাচ্ছেন ! তবেই না সংবাদে রোজ রোজ উঠে আসবে ‘নায়িকার সংবাদ’ !

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES